• শনিবার , ১১ জুলাই ২০২০

আসুন জেনে নেই ঝাল মরিচের উপকারিতা।

ঝাল মরিচ আমাদের শরীরের জন্য উপকারী!অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি। আসুন জেনে নেই ঝাল মরিচের উপকারিতাঝাল মরিচ

মরিচ রান্নার একটি অনন্য উপকর। আমরা বাঙ্গালিরা মরিচ ছাড়া রান্নার কথা ভাবতেও পারি না। সাধারণত ঝাল স্বাদের জন্য রান্নায় ব্যবহার করা হয় মরিচ।আর মরিচে রয়েছে নানা রকম ঔষধি গুন। কাঁচা মরিচের ঝাল শরীরের জন্য খুবই উপকার শুকনা বা গুড়া মরিচের তুলনায়।কারন কাঁচা মরিচে ক্যাপসেইসিনের পরিমান বেশি ও ভিটামিন- সি থাকে অনেক।

 

★ নিম্নে ঝাল মরিচ খাওয়ার উপকারিতাগুলো দেয়া হলো :

 

১/ মরিচে আছে ক্যাপসেইসিন যা রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণ করে এবং এটা ডায়বেটিস রোগীদের জন্য খুবই উপকার। 

   

২/ এটি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

  

৩/ ক্যাপসেইসিন হলো এক ধরনের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট যা রক্তে চর্বি জমতে বাধা দেয়।

 

৪/ কাঁচা মরিচে থাকা একাধিক উপকারী উপদান যা শরীরে কোলেস্টরেলের মাত্রা কমিয়ে দেয়। এতে আমাদের হার্ট সুস্থ থাকে এবং স্ট্রোকের আশঙ্কা কমে যায়।

 

৫/ মরিচে রয়েছে প্রচুর পরিমান বিটা ক্যারোটিন ও ভিটামিন-সি যা আমাদের ত্বকে সুন্দর করে ও বলি রেখা দূর করে।   

 

৬/ মরিচ আমাদের চুলের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী এবং এতে যে উপাদানগুলো আছে তা আমাদের দৃষ্টিশক্তির উন্নতি করে। 

   

৭/ এক গবেষনায় দেখা গেছে যে, মরিচের ঝালে যে যৌগ ক্যাপসিসিন রয়েছে তা শরীরে ক্যান্সারের কোষ ধ্বংস করে।

 

৮/ ঝাল খাবার খেলে রাগ কমে।গবেষণায় দেখা গেছে যে,  ঝাল খাবার আমাদের দেহে সেরেটেনিনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয় যাতে করে মস্তিষ্কে এক ধরনের ভালোলাগা উৎপন্ন হয়।এতে করে রাগ দূর হয়।

 

৯/ কাঁচা মরিচে রয়েছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও অন্যান্য উপাদান যা আমাদের পরিপাকতন্ত্রের কাজ সুষ্ঠুভাবে করে এবং হজমশক্তিও বাড়ে।

 

১০/ কাঁচা মরিচে যে বিটা ক্যারাটিন ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে তা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। ফলে সর্দি, কাশি ও ফ্লু জাতীয় সমস্যা দূর করে।

 

১১/  ঝাল মরিচের উপাদান আমাদের এলার্জি জাতীয় সমস্যা দূর করে।  

 

 ★মরিচের ঝাল সাধারণত আমাদের শরীরের জন্য তেমন ক্ষতিকর নয়। তবে যাদের গ্যাসটিক বা আলসার আছে তাদের ঝাল কম খাওয়াই ভালো। কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক দল গবেষক  এই সমীক্ষা চালিয়েছিলেন যে, বেশি মরিচ খাওয়ার কারণে মানুষের মধ্যে অ্যালঝাইমার্স বা স্মৃতিশকৃতি হারানোর রোগের সম্ভাবনাও দেখা দেয়।

 

মরিচ আমরা কাঁচাও খেতে পারি আবার রান্নার স্বাদ বাড়তে ও চটপটা করতেও মরিচ ব্যবহার করি।যেহেতু কাঁচা মরিচে ভটামিন – সি আছে তাই প্রতিদিন আমাদের ৩/৪ টা মরিচ খাওয়া উচিত।

 

BY

ত্রোপা চক্রবর্তী

Related Posts

Leave A Comment