• বৃহস্পতিবার , ১৭ অক্টোবর ২০১৯

পাক সফরে ফের শ্রীলংকার ওপর ‘হামলার’ হুমকি

চলতি মাসের শেষ দিকে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে পাকিস্তান যাওয়ার কথা শ্রীলংকার। তবে নতুন করে সন্ত্রাসী হামলার হুমকিতে থমকে গেছে সিরিজের ভবিষ্যৎ! এর মুখে লংকানরা পাক সফর বাতিল করতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

২০০৯ সালে লাহোরে টিম শ্রীলংকার ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর পাকিস্তানে সফরে যায় না আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলুড়ে দলগুলো। অবশ্য দু-একটি ব্যতিক্রম আছে। তবে দেশটিতে পুরোপুরি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরেছে-এ কথা বলা যাবে না।

এ পরিস্থিতিতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয় শ্রীলংকা। সেপ্টেম্বরের শেষে সেখানে সফর করতে চায় তারা। পাকিস্তানের সার্বিক নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেই এ সিদ্ধান্তে উপনীত হয় ওরা। দেশটি সফর শেষে নিরাপত্তা পর্যবেক্ষক দলের সবুজ সংকেত পেয়েই এমন সিদ্ধান্ত নেয় লংকা।

স্বভাবতই আশায় বুক বেঁধেছিলেন পাক ক্রিকেট ভক্তরা। দীর্ঘদিন পর দুই জাতীয় দলের লড়াই দেখতে পাচ্ছেন তারা। তবে খুব সম্ভবত তাদের আশা পূরণ হচ্ছে না।

শ্রীলংকান প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় জানিয়েছে, পাক সফরে নতুন করে হামলার হুমকি পেয়েছে তারা। সেখানে খেলতে গেলে লংকান ক্রিকেট দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলা হতে পারে। ফলে ক্রিকেট মহলে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

গেল মঙ্গলবার হামলার তথ্য পেয়েই নড়েচড়ে বসেছেন শ্রীলংকা ক্রিকেট বোর্ডের (এসএলসি) কর্মকর্তারা। এর মধ্যে সফর করার যৌক্তিকতা খুঁজছেন তারা। সব কিছুই নতুন করে ভাবছে বোর্ড। ‘নির্ভরযোগ্য’ সূত্রে পাওয়া সেই তথ্য যাচাই-বাছাই করে পাকিস্তান সফরে যাবে কিংবা প্রত্যাহার করবে বোর্ড।

পাকিস্তানে সফরে হুমকির বিষয়টি বেশ গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে লংকান ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। এক বিবৃতিতে তারা জানিয়েছে, দেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ-আলোচনার ভিত্তিতেই সিরিজের ভবিষ্যৎ নির্ধারিত হবে।

অবশ্য এর আগেই সন্তাসকবলিত দেশটির মাটিতে খেলতে যাওয়ার ব্যাপারে অসম্মতি জানিয়েছেন লাসিথ মালিঙ্গাসহ দলের ১০ সিনিয়র ক্রিকেটার। তাদের বাইরে রেখেই টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা করতে হয়েছে এসএলসিকে। অধিনায়ক করা হয়েছে দাসুন শানাকাকে।

Related Posts

Leave A Comment