• শনিবার , ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

রাশিয়ার সাথে পশ্চিমের যুদ্ধ লেগে যেতে পারে এবং তা হবে ‘সর্বশেষ যুদ্ধ’।

রুশ সেনাবাহিনীর সাবেক একজন শীর্ষ জেনারেল বিবিসিকে বলেছেন, ব্রিটেনে একজন সাবেক রুশ গুপ্তচরের ওপর নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগের ঘটনা নিয়ে রাশিয়ার সাথে পশ্চিমের যুদ্ধ লেগে যেতে পারে এবং তা হবে ‘সর্বশেষ যুদ্ধ’।

লে জে ইয়েভগেনি বুজনিস্কি – যিনি বর্তমানে নিরাপত্তা বিষয়ক একটি আন্তর্জাতিক গবেষণা সংস্থার প্রধান – বলছেন, রাশিয়ার সাথে পশ্চিমা দেশগুলোর সম্পর্ক এতটাই খারাপ হয়ে পড়েছে যে তা নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ার যথার্থ কারণ রয়েছে।

“পরিণতি শীতল যুদ্ধের চেয়ে অনেক খারাপ হতে পারে, এবং ফলাফল খুব খুব খারাপ হতে পারে…মানব ইতিহাসের সর্বশেষ যুদ্ধ লেগে যেতে পারে”।

জেনারেল বুজনিস্কি বলেন,”দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া রাশিয়া খুবই ভয়ঙ্কর”।

ইংল্যান্ডের সলসবেরি শহরে গত মাসে সাবেক স্বপক্ষত্যাগী এক সাবেক রুশ গুপ্তচর এবং তার মেয়েকে বিষাক্ত নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগে হত্যার চেষ্টার জন্য ব্রিটেন সরাসরি রাশিয়াকে দায়ী করে।

এরপর যুক্তরাষ্ট্র সহ ২০টিরও বেশি ইউরোপীয় দেশ থেকে একশরও বেশি রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করা হয়। পাল্টা জবাবে রাশিয়াও সমান সংখ্যক পশ্চিমা কূটনীতিককে বহিষ্কার করেছে।

শুধু ব্রিটেন বা আমেরিকা নয়, সারা বিশ্বের বহু দেশই তো সলসবেরির ঘটনায় রাশিয়ার সংশ্লিষ্টতা রয়েছে বলে বিশ্বাস করে – বিবিসির এরকম প্রশ্নে জেনারেল বুজনিষ্কি বলেন, “আপনারা যখন বিশ্বের কথা বলেন, তখন আপনারা ইউরোপীয় ইউনিয়ন,যুক্তরাষ্ট্র এবং আর দু’একটি দেশের কথা বোঝান।”

নার্ভ গ্যাস যে রাশিয়ার তা নিশ্চিত নয়- ব্রিটিশ ল্যাব

ওদিকে ব্রিটেনের সরকারি যে গবেষণাগারে (পোর্টন ডাউন ল্যাব) সলসবেরিতে প্রয়োগ করা নার্ভ গ্যাস পরীক্ষা করা হচ্ছিল, তারা গতকাল (মঙ্গলবার) বলেছে- নভিচক নামে ঐ বিষাক্ত গ্যাস যে রাশিয়া থেকে এসেছিল তার প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

দু’সপ্তাহ আগে ব্রিটেনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন – পোর্টন ডাউন ল্যাবের বিজ্ঞানীরা একশ ভাগ নিশ্চিত যে বিষাক্ত গ্যাস রাশিয়ায় তৈরি।

তবে গতকাল (মঙ্গলবার) ল্যাবের প্রধান গ্যারি এইটকেনহেড বলেছেন, তারা বের করেছেন যে ঐ নার্ভ এজেন্ট ছিল মিলিটারি গ্রেডের নভিচক কিন্তু “আমরা এর সুনির্দিষ্ট সূত্র খুঁজে পাইনি।”

রাসায়নিক অস্ত্র সম্পর্কিত এই ল্যাবরেটরির বক্তব্যে একদিকে যেমন অস্বস্তিতে পড়েছে ব্রিটেন সরকার, সেই সাথে রাশিয়া ব্রিটেনের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় তুলেছে।

প্রেসিডেন্ট পুতিন মঙ্গলবার রাতে বলেছেন, বিশ্বের বিশটি দেশে নভিচক তৈরির ক্ষমতা রাখে।

অন্যদিকে রুশ উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যালেক্সান্ডার গ্রুশকো বলেছেন – ব্রিটেন এখন শক্তিধর একটি শত্রু খুঁজে বেড়াচ্ছে।

রাশিয়ার সরকারের পক্ষ রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সলসবেরিতে রুশ সাবেক গুপ্তচরের ওপর গ্যাস প্রয়োগের ঘটনা হয়তো ব্রিটিশ গুপ্তচরদের কাজ।

তিনি বলেন, ব্রেক্সিট নিয়ে ব্রিটিশ সরকার যে সমস্যায় পড়েছে, তা থেকে মানুষের নজর অন্যদিকে ঘোরাতেই হয়তো এই কাজ করা হয়েছে।

তবে এই সন্দেহ উড়িয়ে দিয়েছেন ব্রিটেনের সরকারি মন্ত্রীরা।

source-bbc bangla

Related Posts

Leave A Comment