উড়ালপঙ্খি-পর্ব-(৫)-হুমায়ুন আহমেদ

হঠাৎ হিপনােটিজমের বই পড়ছ কেন ? | কী করে মানুষকে হিপনােটাইজ করা যায় এটা শেখার জন্যেপুরােপুরি শেখার পর বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ম্যাজিশিয়ানরা যেমন যাদু দেখায় আমি হিপনােটিজমের খেলা দেখাবকোনাে একজন দর্শককে স্টেজে ডেকে এনে হিপনােটাইজ করবউড়ালপঙ্খিতারপর তাকে বলবআপনি এখন মানুষ নাআপনি একটা বড় সাইজের কোলা ব্যাঙআপনি স্টেজে লাফাতে থাকুনসে তখন ব্যাঙের মতাে লাফাতে লাফাতে স্টেজের মাথা মাথা যাবেমজা হবে না

হবার তাে কথাএই শােন, তুমি যেখানে আছ সেখান থেকে কি আকাশ দেখা যায় ? হ্যা যায়আকাশে মেঘ আছে ? সামান্য, বেশি নাকেন বলাে তাে

আকাশ যদি খুব মেঘলা হয়ে থাকত আর ঝুমঝুম করে বৃষ্টি পড়ত, এক্ষুণি বৃষ্টি হবে, এক্ষুণি বৃষ্টি হবে ভাব থাকত তাহলে তােমাকে আসতে বলতাম| আকাশে মেঘ জমতে শুরু করেছেমনে হয় সন্ধ্যার দিকে বৃষ্টি হবেতুমি বললে আমি চলে আসতে পারিআমার কোনাে কাজ নেই। 

উড়ালপঙ্খি-পর্ব-(৫)-হুমায়ুন আহমেদ

তােমার কাজ না থাকলেও আমার আছেআমি এখন গভীর মনােযােগ দিয়ে বই পড়ছিতবে ঝুমঝুম করে বৃষ্টি হলে অবশ্যই তােমাকে আসতে বলতামআচ্ছা শােন, ঝুমকুম করে বৃষ্টি শুরু হলে তুমি চলে এসােআসার সময় আমার জন্যে দুটা জিনিস নিয়ে আসবেএকটা হচ্ছে লটকন। 

অবশ্যই লটকন নিয়ে আসবআরেকটা কী ? | সিডির দোকানে যাবেএকটা গানের সিডি কিনে আনবে নাম উড়ালপখি। সিংগারের নাম বলে দাও। কী আশ্চর্যর কথা, সিংগারের নাম তুমি জানাে নাতােমার গাওয়া নাকি ? হাকবে বের হয়েছে ? গত মাসেকই আমাকে তাে কিছু বলাে নি!

এটা কি ঢাক পিটিয়ে বলার মতাে কোনাে ঘটনা ? এমন তাে না এটা আমার জীবনের প্রথম সিডিকাসুন্দি আনতে পারবে ? কাসুন্দি দিয়ে লটকন মাখিয়ে ভর্তা বানিয়ে খাবএখন সব বড় বড় গ্রোসারি সপে পাওয়া যায়। 

পাওয়া গেলে নিয়ে আসব| ঝুম বৃষ্টি নামলে তবেই আসবেখটখটে শুকনা সময়ে যদি আস তাহলে আমি কিন্তু উপর থেকে নিচেই নামব নাআমি টেলিফোন রেখে দিচ্ছিআমার গায়ের উপর সিগারেটের ছাই পড়ে গেছেসিগারেট খাবার সবচেবিরক্তিকর অংশ হলাে ছাই ঝাড়াসাইনটিস্টরা এত কিছু আবিষ্কার করছে ছাইবিহীন সিগারেট আবিষ্কার করতে পারছে না কেন

উড়ালপঙ্খি-পর্ব-(৫)-হুমায়ুন আহমেদ

খট করে শব্দ হলােনােরা তার অভ্যাসমতাে হঠাৎ টেলিফোন রেখে দিয়েছেমুহিব এখনাে রিসিভার কানে ধরে আছেক্লান্তিকর টু টু শব্দমুহিবের মনে হলাে সে অনন্তকাল ধরে টেলিফোন রিসিভার কানে নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেকান থেকে রিসিভার নামাতে ইচ্ছা করছে নাএখন সে যদি নােরাকে আবারাে টেলিফোন করে, নােরা আগের মতােই বলবে আপনি কে বলছেন জানতে পারি কি ? মুহিব যদি তার পরিচয় দেয় তাহলে সে আবারাে উৎসাহের সঙ্গে কথা বলা শুরু করবেতারপর এক সময় আচমকা বলবেরাখি কেমন ? বলেই খট করে টেলিফোন রেখে দেবে। 

নােরাকে আরেকবার টেলিফোন করতে ইচ্ছা করছে কিন্তু হাতে সময় নেইইন্টারভিউ দিতে যেতে হবেছয়সাতজন গম্ভীর এবং বিরক্ত মুখের মানুষের সামনে হাসি হাসি মুখ করে বসতে হবে বিরক্ত মানুষরা সবাই ভাব করবেতারা সাধারণ কেউ না, তারা অতীশ দীপঙ্কর টাইপ মহাজ্ঞানীএদের মধ্যে একজন থাকবে চার্লি চ্যাপলিন ধাচেররসিকতা করার চেষ্টা করবে, ফাজলামি করার চেষ্টা করবেকথা বলবে গ্রাম্য ভাষায়তার ফাকে ফাকে হঠাৎ খাটি ব্রিটিশ একসেন্টে ইংরেজিতে কথা বলবে

উড়ালপঙ্খি-পর্ব-(৫)-হুমায়ুন আহমেদ

বুঝানাের জন্যে যে আমি একটু আগে গ্রাম্য ভাষায় কথা বলছি এটা আমার পরিচয় নাগ্রামপ্রীতির কারণে কাজটা করেছিএকজন থাকবে, যেকোনাে প্রশ্ন করবে না তার কাজ এক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকাভাব এরকম যে, আমার প্রশ্ন করার দরকার নেইমুখের দিকে তাকিয়েই আমি সবকিছু বুঝে ফেলতে পারিএকজন থাকবে বিজ্ঞানমনস্ক টাইপ বিজ্ঞানের জটিল সব প্রশ্ন করবে, যার উত্তর দেয়া সম্ভব নাউত্তর না পেয়ে সেই গাধা মাথা নাড়তে নাড়তে মধুর ভঙ্গিতে হাসবেহাসি দিয়ে বুঝিয়ে দেবেএখনকার ছেলেমেয়েরা বিজ্ঞানের কিছুই জানে না এতে সে অত্যন্ত ব্যথিত। 

মুহিব তার চার বছরের বেকার জীবনে অনেক ইন্টারভিউ দিয়েছেপ্রতিটা ইন্টারভিউর একই চেহারাদ্যা এরনসে সে চার মাস আগে একবার ইন্টারভিউ দিয়েছেতার দ্বিতীয়বার ডাক পড়েছেদ্বিতীয়বার ডাকের অর্থ কি এই যেচাকরি হবে ? মুহিবের তা মনে হয় নাতার ধারণা এই কোম্পানির কোনাে কাজকর্ম নেইকোম্পানির ডিরেক্টররা চার পাঁচবার করে ইন্টারভিউ নিয়ে কাজ দেখাচ্ছেনপ্রথমবারের ইন্টারভিউ মােটেই ভালাে হয় নিসে কোনাে প্রশ্নের জবাব পারে নিএক ভদ্রলােক হঠাৎ জিজ্ঞেস করলেনমর্মাহতশব্দটারমানে কী ? বাংলায় কথা বলার সময় আমরা প্রায়ই বলিএই ঘটনায় আমি মর্মাহতঅর্থাৎ সে মর্মে আহতমর্ম জিনিসটা কী

মুহিব শুকনা গলায় বলেছিল, জানি না স্যারমর্ম কী তুমি জানাে না ? জিনা স্যারতােমার কোনাে অনুমান আছে ? তােমার কী মনে হয়মর্ম কী ? | আমার ধারণা মর্ম হলাে মন। মন মানে কী

উড়ালপঙ্খি-পর্ব-(৫)-হুমায়ুন আহমেদ

মুহিব অস্বস্তির সঙ্গে বলল, মন হলাে চেতনাইন্টারভিউ বাের্ডের সবাই হাে হাে করে হাসতে শুরু করলতাদের ভাব এরকম যেন জীবনে এত হাসির কথা কেউ শুনে নিতখন চার্লি চ্যাপলিন বাবাজি গম্ভীর গলায় বললেন, আপনারনাম মুহিবমুহিব নামের অর্থ কী

মুহিব বলল, মুহিব নামের অর্থ প্রেমিক। 

আবারাে হাসি শুরু হলাে| এইখানেই তার ইন্টারভিউর সমাপ্তিবলা যেতে পারে হাস্যকর সমাপ্তিধরনের ইন্টারভিউর পর আবারাে তাকে কেন ডাকা হলাে সে জানে নাজানার দরকারও নেই। তার জীবনটা একটা রুটিনের ভিতর পড়ে গেছেএই রুটিনে মাঝে মধ্যে তাকে ইন্টারভিউ দিতে হবেসে দিয়ে যাচ্ছেব্যস। 

মাঝারি ধরনের ঠাণ্ডা ঘরে মুহিব বসে আছেঘরে এসি চলছেদরজাজানালা সবই বন্ধমুহিব ছােটখাট এক ভদ্রলােকের সামনে বসে আছেভদ্রলােকের বয়স পঞ্চাশের উপরে বলে মনে হচ্ছেকত উপরে তা ধরা যাচ্ছে নাভদ্রলােকের চেহারা শান্ততাকানাের ভঙ্গি শান্তকিছু কিছু মানুষ আছে প্রবল ঝড়ঝঞার সময়ও যাদের দেখে মনে হয় বেশ শান্তিতে আছেনভদ্রলােক ইপেরতিনিই সম্ভবত মুহিবের ইন্টারভিউ নেবেন

Leave a comment

Your email address will not be published.