কক্সবাজারে ভেসে আসছে দূষিত বর্জ্য, প্রাণ হারাচ্ছে মা কচ্ছপ

করোনা পরিস্থিতির কারনে কক্সবাজার সমুদ্রে মাছ ধরার নেই কোনো নৌযান । কিন্ত্ত হঠাৎ করেই সৈকতে ভেসে আসছে বিপুল পরিমানে প্লাষ্টিক, ইলেকট্রনিক্স বর্জ্য ও নাইলনের ছেঁড়া জাল । বর্জ্যর সঙ্গে ভেসে আসা নাইলনের ছেঁড়া জালের সাথে আটকা পড়ে থাকা অন্তত ২০ টি মা কচ্ছপ মারা গেছে । স্থানীয় ঝিনুক ব্যবসায়ীরা জানান, গত শনিবার বিকেলে জোয়ারের পানিতে ভেসে আসতে শুরু করে বিপুল পরিমান বর্জ্য । রবিবার বিকেল পর্যন্ত কলাতলী থেকে দক্ষিণ দিকে হিমছড়ি
সৈকত পর্যন্ত প্রায় ১০কি.মি ছড়িয়ে পড়েছে পরিবেশ দূষণকারী এসব বর্জ্য ।

গতকাল দুপুর পর্যন্ত কোনো সরকারী সংস্থাকে বর্জ্য অপসারণের জন্য এগিয়ে আসতে দেখা যায় নি । স্থানীয় কিছু তরুণ বর্জ্যগুলো সরিয়ে নেত্তয়ার চেষ্টা করছে । কক্সবাজারভিত্তিক পরিবেশবাদী সংগঠন ‘সেভ দ্য নেচার বাংলাদেশ’ এর চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসাইন গতকাল সমুদ্র সৈকত পর্যবেক্ষন করে এসে জানান, গত দুই দিনে সৈকতের ১০কি.মি এলাকায় অন্তত ৫০-৬০ টন বর্জ্য ভেসে এসেছে । সৈকতে ২০ টি মৃত মা কচ্ছপ দেখা গেছে । গত দুই দিনে তাঁরা আহত আটটি কচ্ছপকে সুস্থ করে পুনরায় সাগরে ছেড়ে দিয়েছেন । জেলা মৎস কর্মকর্তা এস এম খালেকুজ্জামান বলেন, কেন বর্জ্য ও মা কচ্ছপ ভেসে আসছে, তার যথাযত অনুসন্ধান চলছে।চট্রগ্রাম বিভাগীয় বন কর্মকর্তা আবু নাছের মোঃ ইয়াছিন বলেন, প্লাষ্টিকসহ নানা ধরনের বর্জ্য আটকা পড়েছে কাছিম । সেখানে টিম পাঠানো হয়েছে । তারা কাছিমগুলোর চিকিৎসা নিশ্চিত করে সুস্থগুলোকে সাগরে ফিরিয়ে দিবে । 

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সমুদ্রবিদ্যা  বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ মোসলেম উদ্দিন বলেন, সাগরে শক্ত মনিটরিং না থাকায় বিদেশি জাহাজ থেকে বর্জ্য ফেলা হয় । এর ফলে সমুদ্রের ভয়ানক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে ।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.