• Wednesday , 3 March 2021

করোনা হওয়ার পরও কি টিকা নিতে হবে? 

করোনা হওয়ার পরও কি টিকা নিতে হবে? 

বিভিন্ন দেশে টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে । টিকা নিয়ে অনেকের অনেক প্রশ্ন রয়েছে । যেমন আমার যদি আগে কোভিড (করোনা) হয়ে থাকে এবং সুস্থ হয়ে উঠি, তাহলেও কি টিকা নিতে হবে? যেমন ধরা যাক একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন: একবার আক্রান্ত হয়ে কোভিডমুক্ত হয়ে তো দেহে প্রয়োজনীয় প্রতিরোধ ব্যবস্থা আমার বয়স যা-ই হোক, বেশি বা কম, আমার টিকা নেওয়া কতটা জরুরি । আমার কি আদৌ টিকা নেওয়া দরকার? জটিল প্রশ্ন । এ বিষয়ে কোনো কোনো বিশেষজ্ঞের মতে একবার কোভিডে আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে ওঠার পর যেহেতু তার রোগ প্রতিরোধক্ষমতা সৃষ্টি হয়ে যায়, তাই আর টিকার প্রয়োজন নেই । কিন্তু অধিকাংশ বিশেষজ্ঞ মনে করেন, সবারই টিকা নেওয়া ভালো । কারণ, আক্রান্ত ব্যক্তি কী মাত্রায় আক্রান্ত হয়েছেন, সে অনুযায়ী তার দেহে প্রতিরোধক্ষমতা কার্যকর হয় । হার্ভার্ড টি এইচ চ্যান স্কুল অব পাবলিক হেলথের এপিডেমিওলজিস্ট বিল হ্যানেজ এ বিষয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য দিয়েছেন । তিনি বলেন, কোনো ব্যক্তির করোনাভাইরাস যদি হালকা ধরনের হয় এবং দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন, তাহলে তার দেহে সৃষ্ট প্রতিরোধক্ষমতা সাধারণত বেশি দিন সক্রিয় থাকে না । এ অবস্থায় তার টিকা নেওয়া দরকার । সুতরাং সাধারণভাবে বলা যায়, সবার জন্যই টিকা প্রযোজ্য ।

করোনা হওয়ার পরও কি টিকা নিতে হবে? 

করোনা হওয়ার পরও কি টিকা নিতে হবে?

টিকা নিলেও কি মাস্ক পরতে হবে? 

প্রশ্নটা প্রাসঙ্গিক । কারণ, টিকা নেওয়ার পর একজন ব্যক্তির দেহে কোভিড-১৯ সংক্রমণ ঘটার কথা নয় – করোনাভাইরাসের অ্যান্টিবডি তাকে সুরক্ষা দেবে । এ অবস্থা তার মাস্ক পরার প্রয়োজনীয়তা না থাকারই কথা । তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, টিকা নিলে একজন নিশ্চয়ই কোভিড- ১৯ রোধের সক্ষমতা অর্জন করবে । কিন্তু প্রশ্ন হলো, তারা অন্যের জন্য কতটা নিরাপদ । ওরা অন্যদের দেহে কোভিডের সংক্রমণ ছড়াতে পারে কি না ? এটা এখনো পরিষ্কার নয় । কারণ, টিকা দেওয়া হয় হাতের পেশিতে । এর ফলে দেহে অ্যান্টিবডি তৈরি হয় । কিন্তু নাকের গভীরে কোভিড ভাইরাস দমনে কতটা ভূমিকা রাখতে পারে, সেটা নিশ্চিতভাবে বলা যায় না । এখন পর্যন্ত যেসব পরীক্ষা হয়েছে, তাতে দেখা গেছে, টিকা সুরক্ষা দেয় । কিন্তু সবার অজান্তে ভাইরাস ছড়ায় কি না, সে পরীক্ষার ফল এখনো নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি । এমনও হতে পারে, টিকা নিলে নিজে সুরক্ষা পাবেন ঠিকই, কিন্তু তারপরও হয়তো অন্যদের দেহে ভাইরাস সংক্রমণ ঘটাতে পারেন । টিকা নেওয়ার ফলে নিশ্চয়ই সংক্রমণ ছড়ানোর হার কমে আসবে । কিন্তু তারপরও দেখতে হবে, তারা নিজেরা সংক্রমণমুক্ত অবস্থায়ও অন্যদের সংক্রমিত করেন কি না । সে জন্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কোভিড টিকা নেওয়ার পরও সাস্থ্যবিধি অনুযায়ী নিয়মিত মাস্ক পরা দরকার । তবে সেটা সাময়িককালের জন্য । এর মধ্যে পরীক্ষায় নিশ্চিতভাবে জানা যাবে টিকার ফলে সংক্রমণ ছড়ানোও বন্ধ হয় কি না । ইয়েল ইউনিভার্সিটির ভাইরোলজিষ্ট আকিকো আইওয়াসাকি (Akkiko Iwasaki) অবশ্য বলেছেন, টিকা নিলে রোগ প্রতিরোধক্ষমতা যথেষ্ট বৃদ্ধি পায় এবং এর ফলে নাকের গভীরেও তা সক্রিয় ভূমিকা রাখে আর সংক্রমণ ছড়ানো নিয়ন্ত্রিত হয় । 

সবার কি টিকা নিতে হবে?

তরুণ ও যুবাদের কোভিডে সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা তুলনামূলক কম । কম ঝুঁকিতে থাকেন বলে হয়তো বলতে পারেন, এত টানাটানির মধ্যে তাদের টিকা না নিলেও তো চলে । কারণ, তাদের তো ঝুঁকি কম, আর আক্রান্ত হলেও খুব বেশি তীব্র হয় না । কিন্তু এটা ভুল ধারণা সবারই টিকা নিতে হবে। পর্যায়ক্রমে । না হলে অন্যদের মধ্যে সংক্রমণের আশঙ্কা থেকেই যাবে । দেশের জনসংখ্যার অন্তত ৮০ শতাংশ টিকা নিলে কোভিডের অন্যদের সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা প্রায় থাকে না । তাই পাঁচ ভাগের চার ভাগ মানুষের টিকা নেওয়া অবশ্যই দরকার ।

 

 

 

আব্দুল কাইয়ুম, চলতি ঘটনার সম্পাদক

Related Posts

Leave A Comment