খুলনাকে ১৯০ রানের টার্গেট রাজশাহীর

বয়স ৩৮ ছুঁই ছুঁই। এই বয়সে অনেকেই ব্যাট-প্যাড তুলে রাখেন। তবে এখনো খেলে যাচ্ছেন শোয়েব মালিক। ব্যাটেও রয়েছে তারুণ্যের ছোঁয়া। ছোটাচ্ছেন রানের ফোয়ারা। বঙ্গবন্ধু বিপিএলে চট্টগ্রাম পর্বের প্রথম ম্যাচে রূদ্রমূর্তি ধারণ করলেন তিনি। খেললেন ৮৭ রানের ঝড়ো ইনিংস। ৫০ বলে ৮ চার ও ৪ ছক্কায় ইনিংসটি সাজান পাকিস্তানি রিক্রুট।

সেঞ্চুরির পথেই ছিলেন শোয়েব।শেষদিকে অতি আগ্রাসী হয়ে খেলতে গিয়ে আমিরের বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। এটিই এবারের আসরে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস।

অপর প্রান্ত থেকে যোগ্য সহযোদ্ধার সমর্থন জোগালেন রবি বোপারা। দারুণ খেললেন তিনিও। তাতে বড় সংগ্রহ পেল রাজশাহী রয়্যালস। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৮৯ রান সংগ্রহ করেছে তারা। বোপারা ২৬ বলে ২টি করে চার-ছক্কায় খেলেন হার না মানা ৪০ রানের টর্নেডো ইনিংস। অন্য প্রান্তে ৬ বলে ১টি করে চার-ছক্কায় ১৩ রান করেন অপরাজিত থাকেন।

মঙ্গলবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন খুলনা টাইগার্স অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। ফলে আগে ব্যাট করতে নামে আন্দ্রে রাসেলের রাজশাহী রয়্যালস। তবে শুরুটা শুভ হয়নি তাদের। সূচনালগ্নে মোহাম্মদ আমিরের শিকার হয়ে ফেরেন হযরতউল্লাহ জাজাই। সেই রেশ না কাটতেই রবি ফ্রাইলিঙ্কের বলে আউট হন লিটন দাস (১৯)। এতে রানের চাকা স্লো হয়ে যায়।

খুলনাকে ১৯০ রানের টার্গেট রাজশাহীর

সেখানে শোয়েব মালিককে নিয়ে খেলা ধরেন আফিফ হোসেন। ভালোই খেলছিলেন তারা। ফলে চাপ কাটিয়ে ওঠে রাজশাহী। কিন্তু হঠাৎ পথচ্যুত হন আফিফ (১৯)। শহিদুল ইসলামের বলে বিদায় নেন তিনি।

এখন পর্যন্ত ২ ম্যাচে দুই জয় নিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে রয়েছে রাজশাহী। আসরে ইতিমধ্যে হট ফেভারিটের তকমা পেয়ে গিয়েছে দলটি। আন্দ্রে রাসেল, লিটন দাস, আফিফ হোসেন, ফরহাদ রেজা, অলক কাপালি, রবি বোপারা, হযরতউল্লাহ জাজাই ও শোয়েব মালিকদের যথেষ্ট শক্তিশালী উত্তরবঙ্গের দলটি।

অন্যদিকে চলমান আসরে একটি ম্যাচ খেলে একটিতেই জিতেছে খুলনা। দলটিও বেশ শক্তিশালী। অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম, রাইলি রুশো, রবি ফ্রাইলিঙ্ক, মোহাম্মাদ আমির, শফিউল ইসলাম, রহমতউল্লাহ গুরবাজরা আছেন এই দলে। ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং তিন বিভাগেই ব্যালান্সড দলটি।

রাজশাহী রয়্যালস একাদশ: হজরতউল্লাহ জাজাই, লিটন দাস, আফিফ হোসেন, শোয়েব মালিক, অলোক কাপালী, রবি বোপারা, আন্দ্রে রাসেল (অধিনায়ক), ফরহাদ রেজা, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ ও কামরুল ইসলাম।

খুলনা টাইগার্স একাদশ: নাজমুল হোসেন শান্ত, রহমানউল্লাহ গুরবাজ, রাইলি রুশো, মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক), শামসুর রহমান, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, রবি ফ্রাইলিঙ্ক, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ আমির ও শহিদুল ইসলাম।

Leave a comment

Your email address will not be published.