• Sunday , 27 September 2020

গাজর কত উপকারী তা আমরা জানি কি?

গাজর আমাদের জন্য কত উপকারী তা আমরা জানি কি?  গাজরের উপকারিতা গুলো দেয়া হলো!  

গাজর খুবই আকর্ষনীয় দেখতে একটি সবজি।চাইনিজ রান্নায় গাজর বেশি ব্যবহার করা হয়। কারন এর রঙ্গটা এতটাই আকর্ষনীয় যে এটা খাবারকেও করে তুলে আকর্ষনীয় ও লোভনীয়।এটি দিয়ে তৈরি করা হয় হালুয়া।যা খুবই মুখরোচক। গাজর কাঁচা অর্থাৎ সালাদ হিসেবেও খাওয়া যায়।গাজরে রয়েছে বিটা ক্যারোটিন।গাজর

যা নিজেই ভিটামিন – এ তে রূপান্তরিত হয়ে মানব শরীরের নানা উপকার করে থাকে। গাজরে রয়েছে – ভিটামিন – বি, ভিটামিন – সি, লৌহ, খনিজ পদার্থ, ফসফরাস, ক্যারোটিন, শর্করা, খাদ্য শক্তি ইত্যাদি।যা আমাদের শরীরের জন্য খুবই উপকার। 

গাজর আমাদের শরীরের কি কি উপকার করে তা নিম্নে দেয়া হলো —-

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় :

ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে গাজরের রসের বিকল্প নেই।এটি ভিতর থেকে ত্বকে উজ্জল করে।গাজরে বিদ্যমান  ভিটামিন – এ ত্বকের রোদে পুড়া কালচে দাগ দূর করে।

বয়সের ছাপ কমায়:

বিটা ক্যাটোটিন সমৃদ্ধ গাজরে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। যা কোষের ক্ষয় রোধে সহায়তা করে।ফলে দ্রুত বুড়িয়ে যাওয়া রোধ করে কারন বয়সের ছাপ পরে না ত্বকে এবং বলিরেখাও পরে না।

হজম শক্তি বৃদ্ধি করে :

গাজরে আশঁ জাতীয় উপাদান থাকায় তা আমাদের হজম শক্তি বাড়ায়। 

ব্যথা ও জ্বালা পোড়া কমায়:

বয়সের কারনে শরীরে যে ব্যথা বেদনা হয় তা গাজরের রসের মাধ্যমে দূর করা সম্ভব। এছাড়াও শরীরের জ্বলা পোড়াও গাজরের রসের মাধ্যমে দূর করা যায়।   

দৃষ্টি শক্তি বাড়াতে সহায়তা করে:

গাজরে রয়েছে বিটা ক্যারোটিন যা পর্যায় ক্রমে ভিটামিন-এ তে রূপান্তরিত হয়। আর ভিটামিন-এ আমাদের দৃষ্টি শক্তির জন্য খুবই উপকার। 

 ক্যান্সার প্রতিরোধ :

গাজর ক্যান্সার প্রতিরোধে খুবই উপকার। বিটা ক্যারোটিন সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মি থেকে আমাদের রক্ষা করে। ফলে ব্রেস্ট, কোলন ফুসফুস ইত্যাদি বিভিন্ন রকমের ক্যান্সারের হাত থেকে আমাদের বাঁচায়।

দাঁত মজবুত করে :

গাজরে বিদ্যমান খনিজ পদার্থ ও মিনারেল দাঁত মজবুত করে ও পরিস্কার করে।     

 ইনফেকশাল দূর করে :

গাজরে রয়েছে এন্টিঅক্সিডেন্ট। যা অ্যান্টিসেপ্টিক হিসাবে কাজ করে।তাই শরীরের কোথাও কেটে গেলে ঔ ক্ষত স্থানে গাজর কুচি বা গাজরের রস দিলে বা সেদ্ধ করা গজরের পেস্ট লাগালে ইনফেকশান হবার আশংকা থাকে না।

লিভার ভালো রাখে ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে:

গাজর আমাদের শরীর থেকে টক্সিন দূর করে। ফলে লিভারের অতিরিক্ত চর্বির দূর হয় এবং গাজরে যে আশঁ রয়েছে তা কোলনকেও পরিস্কার করে এবং কোষ্ঠকাঠিন্যও দূর করে।   

হৃদয়পিন্ডের রোগের ঝুকি কমায় : 

গাজরে যে বিটা ক্যারোটিন রয়েছে তা হৃদরোগের মহা ওষুধ। আর তাই না এটি হৃদরোগের ঝুঁকিও কমায়। 

শক্তিশালী খাদ্যগুন সম্পূর্ণ গাজর আমাদের প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় রাখা উচিত।অন্যান্য সবজির তুলনায় গাজর খুবই পুষ্টিগুন সম্পূর্ণ সবজি।এটি আমাদের শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ দূর করে আমাদের সুস্থ ও সুন্দর করে তোলে।       

 

BY

ত্রোপা চক্রবর্তী

Related Posts

Leave A Comment