জুনায়েদ সিদ্দিকীর দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরিতে জয় পেয়েছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) বড় জয় পেয়েছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন। ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দিকীর দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরিতে ভর করে কলাবাগান ক্রীড়া চক্রকে ১৩১ রানে হারিয়েছে তারা।

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খেয়েছে ব্রাদার্স ইউনিয়ন। ওপেনার মিজানুর রহমান মাত্র ৮ রান করে আবুল হাসানের বলে সাজঘরে ফিরে গেছেন। দলের রানও তখন ৮। সেখান থেকে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন জুনায়েদ সিদ্দিকী আর মাইশুকুর রহমান। এই জুটিতে তারা তুলেন ২০৫ রান।

এই জুটির উপর ভর করেই শেষ পর্যন্ত ৪ উইকেটে ৩১৭ রানের বড় পুঁজি গড়তে পেরেছে ব্রাদার্স। ১১১ বলে ১২৩ রানের এক ঝড়ো ইনিংস খেলেছেন জুনায়েদ, যে ইনিংসে ১৬টি চার আর ২টি ছক্কার মার বাঁহাতি এই ওপেনারের। মাইশুকুরও সেঞ্চুরি পেতে পারতেন। শেষ পর্যন্ত ৯৬ রানে সাজঘরে ফিরেছেন তিনি। ১২১ বলের ইনিংসটিতে ৬টি বাউন্ডারি আর ৩টি ছক্কা হাঁকিয়েছেন এই ব্যাটসম্যান।

৩১৮ রানের বড় লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই ব্রাদার্স বোলারদের তোপে পড়েছে কলাবাগান। ১৭ রানের মধ্যে ২ উইকেট হারিয়ে বসে তারা। দ্বিতীয় উইকেটটি ছিল মোহাম্মদ আশরাফুলের। জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক রানের খাতা খোলার আগেই বোল্ড হয়ে ফেরেন সাজঘরে।

১০৭ রানের মধ্যে ৬ উইকেট হারিয়ে ফেলা কলাবাগান পরে আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি। মুক্তার আলী শুধু একটা প্রান্ত ধরে লজ্জা বাঁচাতে চেষ্টা করেছেন। ৫৯ বলে তিনি অপরাজিত ছিলেন ৬২ রানে। ঝড়ো এই ইনিংসটিতে ২টি বাউন্ডারির পাশে ৬টি ছক্কা মেরেছেন এই ব্যাটসম্যান। তবে ৫ ওভার বাকি থাকতেই কলাবাগান অলআউট হয়েছে ১৮৬ রানে।

ব্রাদার্সের পক্ষে ৩টি উইকেট নিয়েছেন সোহরাওয়ার্দি শুভ। ২টি করে উইকেট সাখাওয়াত হোসেন আর মেহেদী হাসান রানার।

Leave a comment

Your email address will not be published.