জয় পেয়েছে ১৫ রানের কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব

গেইলকে বাতিল ভাবা হয়েছিলো, নিলামে কেউ কিনতে চায়নি। অল্প দামে কিনে নিয়েও প্রথম দুই ম্যাচে মাঠে নামায়নি পাঞ্জাব; কিন্তু সুযোগ পেয়েই তিনি জানিয়ে দিয়েছেন যে তার ব্যাটের ধার আগের মতোই আছে।

উপেক্ষার জবাব দিতেই হয়তো আগের ম্যাচের মতোই ঝালটা ঝেড়েছেন প্রতিপক্ষে বোলারদের ওপর। নিলামে উপেক্ষিত গেইলের হাতেই এলো এবারের আইপিএলের প্রথম সেঞ্চুরিটি। তুলে নিয়েছেন টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের ২১তম সেঞ্চুরি। তার ব্যাটে ভর করেই আগে ব্যাট করে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব তুলেছে ৩ উইকেটে ১৯৩ রান। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে জয় পেয়েছে ১৫ রানের। হায়দরাবাদের এটি প্রথম পরাজয়।

১১টি ছক্কার পাশাপাশি মাত্র ১টি চার মেরেছেন গেইল বৃহস্পতিবার মোহালিতে। কতটা আগ্রাসী ছিলেন সেটি এ থেকেই বোঝা যায়। গেইলের সামনে বোলাররা ছিলেন অসহায়। সব মিলে ৬৩ বলে ১০৪ রান করে অপরাজিত  ছিলেন।

সেই তোপে পড়েছেন সাকিব আল হাসানও, দিয়েছেন ২ ওভারে ২৮ রান। ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বাজে বোলিং করলেন স্পিন জাদুকর রশিদ খান। ৫৪ দিয়ে ১টি উইকেট নিয়েছেন তিনি।

ম্যাচের পর গেইল বলেন, ‘অনেকে ভেবেছিল আমি অনেক বুড়ো হয়ে গেছি, এই ইনিংসের পর আমার আর প্রমাণের কিছু নেই’।

বড় টার্গেট তাড়া করতে নেমে হায়দরাবাদ খুব বেশি প্রতিদ্বন্দ্বীতা গড়ে তুলতে পারেনি। ৪ উইকেটে ১৭৮ রানে থেমেছে তাদের ইনিংস। ১২ বলে ২৪ রান করে অপরাজিত ছিলেন সাকিব আল হাসান। অবশ্য ইনিংসের গুরুত্ব খুব বেশি ছিলো না; কারণ শেষ ওভারে অশ্বিনকে যখন পরপর দুই বলে দুটি ছক্কা মেরেছেন, তার আগেই পরাজয় নিশ্চিত হয়ে গেছে দলের।

Leave a comment

Your email address will not be published.