টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সরাসরি অংশ না নিতে পারায় হতাশ সাকিব

shakib

২০২০ সালে ১২ দলের অংশগ্রহণে অস্ট্রেলিয়ায় বসছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ছোট ফরম্যাটের ক্রিকেটের ষষ্ঠ আসরে সরাসরি অংশ নিতে চলা দলগুলোর নাম প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা জানিয়েছে র‌্যাংকিংয়ের সেরা আটে থাকা দলগুলোই মূল পর্বে সরাসরি অংশ নিতে পারবে। বাকি আরও চারটি দল বাছাই পর্ব পার করে যোগ দিতে পারবে বিশ্বকাপে। সেরা আটে থাকা ক্রম অনুসারে দলগুলো হচ্ছে পাকিস্তান, ভারত, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আফগানিস্তান। আইসিসির র‌্যাংকিংয়ে নবম স্থানে রয়েছে শ্রীলঙ্কা। আর ১০ নম্বরে অবস্থান করছে বাংলাদেশ।  সে অনুযায়ী আসন্ন টি-টোয়েন্টি সরাসরি অংশ নিতে পারছে না টাইগাররা।

এশিয়ান ক্রিকেটের অপর পরাশক্তি শ্রীলঙ্কাকেও খেলতে হচ্ছে বাছাই পর্বে। পাশাপাশি পূর্নাঙ্গ সদস্যপদ প্রাপ্ত জিম্বাবুয়ে ও আয়ারল্যান্ডকেও দেখা যাচ্ছে না মূল পর্বে।বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, জিম্বাবুয়ে ও আয়ারল্যান্ডকে খেলতে হবে আইসিসি’র সহযোগী আরও ছয় দলের সঙ্গে গ্রুপ পর্ব। এই দলগুলোকে গ্রুপ পর্বে খেলার আগে আবার খেলতে হবে বাছাই পর্বও। সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের বিশ্বকাপে সরাসরি অংশ নিতে না পারায় হতাশা প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। নতুন বছরের প্রথম দিন আইসিসি’র সঙ্গে আলাপকালে সাকিব বলেছেন, আমরা মূল পর্বে জায়গা করে নিতে পারেনি তাই হতাশ। যদিও আমি বিশ্বাস করি সেখানে পৌঁছাতে পারার সক্ষমতা রয়েছে আমার দলের।

বর্তমানে আমরা বিশ্বের যেকোনো দলকেই চ্যালেঞ্জ জানাতে পারি, উল্লেখ করেছেন ৩১ বছর বয়সী এই তারকা। তিনি বলেন, বিশ্বকাপে সরাসরি অংশ নিতে না পারার কোনো কারণ দেখছি না। যেহেতু আমাদের হাতে আরও সময় রয়েছে, আশা করি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের সেরাটাই দিতে পারব।সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স প্রসঙ্গে বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার বলেন, কয়েক দিন আগেই বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তাদের মাটিতেই সিরিজ জয় করেছি। এমন পারফরম্যান্স আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আমাদের প্রেরণা যোগাবে।

 

 

 

 

 

source-rtv

Leave a comment

Your email address will not be published.