ঠোঁট ফাটার সমস্যায় ভুগছেন?

ঠোঁট ফাটা নিয়ে বিব্রত কমবেশি সকলেই হন। এমনিতেই শীতের দিনে ত্বকে টান ধরে, খসখসে হয়ে যায় হাত পা। যেহেতু ঠোঁট শরীরের অন্য অংশের চেয়ে বহুগুণে বেশি স্পর্শকাতর, তাই ঠোঁটের ঝক্কিটাও হয় সবচেয়ে বেশি। শুধু পেট্রোলিয়াম জেলি দিয়ে ঠোঁট ফাটার এই সমস্যা সামাল দেওয়া সম্ভব নয়, আপনার দরকার আরও বেশি কিছু!

ল্যাভেন্ডার আর মিন্ট লিপ বাম

আপনার দরকার দু’ টেবিলচামচ প্রাকৃতিক মোম (ডিপার্টমেন্ট স্টোরে পাবেন) আর এক টেবিলচামচ নারকেল তেল। ছোট বাটিতে এই দুটো উপাদান একসঙ্গে নিয়ে গলিয়ে নিন। আঁচ থেকে সরিয়ে তাতে ছ’ ফোঁটা করে পেপারমিন্ট অয়েল আর ল্যাভেন্ডার এসেনশিয়াল অয়েল মেশান। ভালোভাবে মিশিয়ে নিয়ে কৌটোয় ঢেলে নিন। তারপর ফ্রিজে আধঘণ্টা রেখে জমিয়ে নিন। প্রতি রাতে শুতে যাওয়ার আগে ঠোঁটে ভালোভাবে মেখে নিন, ঠোঁট ফাটার পরিমাণ অনেক কম থাকবে।

শিয়া বাটার আর মধুর লিপ বাম

আপনার লাগবে দু’ টেবিলচামচ গলানো শিয়া বাটার আর এক চাচামচ মধু। দুটো উপাদান একসঙ্গে মিশিয়ে নিন, তাতে চার-পাঁচ ফোঁটা লেমন এসেনশিয়াল অয়েল মেশান। খানিকক্ষণ রেখে জমিয়ে নিন, তারপর কৌটোয় ভরে রেখে দিন। ঠোঁট শুকনো লাগলেই এই বামটা ব্যবহার করুন। ঠোঁটে জ্বরঠোসা উঠলেও এই বাম খুব কাজে দেয়।

কোকো আর বিটের লিপ বাম

আধকাপ কোকো বাটার গলিয়ে নিন। গলানো কোকো বাটারে পাঁচ থেকে ছ’ ফোঁটা গ্রেপফ্রুট এসেনশিয়াল অয়েল মেশান। বামের রং গাঢ় গোলাপি করতে আধ চাচামচ বিটের গুঁড়ো যোগ করে খুব ভালো করে মিশিয়ে নিন যাতে কোনও ডেলা না থাকে। কৌটোয় ঢেলে সারারাত রেখে দিন যাতে ভালোমতো সেট করে যায়। লিপস্টিকের বদলে এই লিপ বামটি অনায়াসে ব্যবহার করতে পারেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.