তিথির নীল তোয়ালে-পর্ব-(১৫) হুমায়ূন আহমেদ

 অথচ কেনার সময় দোকানদার বলল, লাইফ গ্যারান্টিএরা অশিক্ষিত মৃখলাইফ গ্যারান্টিশব্দটির মানেই বােধহয় জানে নাজানলে বলত নাঅশিক্ষিত লোকজন সাধারণত সৎ হয়। 

তিথির নীল তোয়ালেজাফর সাহেব আজ সকাল সকাল বাসায় ফিরেছেনএসে দেখেন তিথি নেইশুন্য বাড়িতে ঢুকতে ভাল লাগে নাশূন্য বাড়িতে ঢুকলে মনে হয়, বাড়িটা চোখ বড় বড় করে দেখছেতিনি শুনেছেন, বেশির ভাগ মানুষ পাগল হয় যখন সে একা একা থাকেএকজন কেউ সঙ্গি পাশে থাকলে নাকি কেউ পাগল হতে পারে না। 

জাফর সাহেবের গা ছম ছম করতে লাগলতিনি বাথরুমে ঢুকলেন কিন্তু বাথরুমের দরজা লাগালেন নাতাঁর কেবলি মনে হল বাথরুমের দরজা লাগালেই আর খুলতে পারবেন নাখুলতে গেলেই দেখা যাবে বাইরে থেকে কেউ দরজা চেপে ধরে আছে। 

তিনি রান্নাঘরে গিয়ে গরম পানি বসালেনএককাপ চা খাওয়া দরকারটি ব্যাগ চা, চিনি এসব নিশ্চয়ই হাতের কাছেই পাওয়া যাবেতিথি হরদম বানাচ্ছেরাতে ঘুমুতে যাবার আগেও তার চা খেতে হয়আশ্চর্যের ব্যাপার, চা, দুধ, চিনি কিছুই নেইএকটা পাওয়া না গেলে অন্যটা তাে পাওয়া যাবেচা পাওয়া না গেলে দুধদুধ পাওয়া না গেলে চিনিকিছুই নেই। 

তিথির নীল তোয়ালে-পর্ব-(১৫) হুমায়ূন আহমেদ

তাঁর মাথায় রক্ত চড়ে গেল। জিনিসগুলি ঘরেই আছে অথচ তিনি পাচ্ছেন না, তা কেমন করে হয় ! এমন তাে না যে জিনিসগুলি অদৃশ্য হয়ে আছে বলে তিনি দেখতে পাচ্ছেন নাঘরেই কোথাও আছেযাবে কোথায়? থাকতেই হবে। 

সন্ধ্যাবেলা তিথি বাসায় ফিরে দেখে রান্নাঘরের সমস্ত জিনিস মেঝেতে নামানােফ্রীজের পানির বােতল নামাতে গিয়ে দুটা পানির বােতল ভেঙেছেথৈথৈ করছে পানিভাঙা কাচে জাফর সাহবের পা কেটেছে। 

তিথি হতভম্ব হয়ে বলল, কি হয়েছে বাবা

জাফর সাহেব অপ্রস্তুত গলায় বললেন, চায়ের দুধ, চিনি, চা এইসব কোথায় রেখেছিস? খুঁজে পাচ্ছি না। 

গ্যাসের চুলার পেছনেই তাে সব রাখাএই তােআচ্ছাবাবা, তুমি তাে দেখি সব একাকার করে ফেলেছ ?” 

চা খাবে? তুমি বারান্দায় বােস, আমি চা বানিয়ে আনছিনা, এখন আর ইচ্ছা করছে নাবাদ দে। 

তােমার কি শরীর খারাপ করেছে নাকি? দেখি কাছে আসাে তাে, গায়ে হাত দিয়ে দেখিনা, শরীর তাে ঠাণ্ডা| জাফর সাহেব হাসতে চেষ্টা করলেনহাসি স্পষ্ট হল নাতিথি বলল, তােমার জন্য স্যাণ্ডউইচ কিনে এনেছিনাও, স্যাণ্ডউইচ নাওবাবা, এখন থেকে এই 

ব্যবস্থাআমি বাজার থেকে স্যাণ্ডউইচ কিনে ঘরে রেখে দেবখিদে লাগলে খাবে। 

আচ্ছা। 

জাফর সাহেব স্যাণ্ডউইচ খেয়ে অবেলায় বিছানায় গিয়ে শুলেন এবং সঙ্গে সঙ্গে ঘুমিয়ে পড়লেনগাঢ় গভীর ঘুমতিথি রাত দশটায় অনেক কষ্টে তাঁকে ডেকে তুললতিনি জানালেন রাতে কিছু খাবেন নাজ্বরজ্বর লাগছে। 

তিথির নীল তোয়ালে-পর্ব-(১৫) হুমায়ূন আহমেদ

নুরুজ্জামানও রাতে কিছু খেল নাসে আজও দুটা আনারস কিনে নিয়ে এসেছেরাতে ভাতের বদলে আনারস খেয়েছেতিথি ভেবে পাচ্ছে না লােকটা পাগল কিনা। 

নুরুজ্জামানের আজ অবশ্যি আনারস কেনার কোন ইচ্ছা ছিল নাসে গিয়েছিল আনারসওয়ালাকে ধন্যবাদ দিতেঐদিনের আনারস অসম্ভব মিষ্টি ছিল, খেয়ে তৃপ্তি পেয়েছিএই কথাগুলি শুধু বলে আসা, লাভের মধ্যে লাভ এই হয়েছে আনারসওয়ালা আরাে দুটা ধরিয়ে দিয়েছে। 

টেকা না থাকলে পরে আইস্যা দাম দিয়েনঅসুবিধা কিছু নাইআর দাম নাদিলেও ক্ষতি নাই। দুইটা আনারসের জন্য আমি না খাইয়া মরুম না। 

এই কথার পর না কিনে উপায় থাকে না। 

তিথি একা একা খেতে বসলকিছুক্ষণের মধ্যেই নুরুজ্জামান এসে সামনে বসলঅপরিচিত একজন পুরুষ মানুষের সামনে বসে খাওয়া অস্বস্তিকরতাকে উঠে চলে যেতে বলা আরাে অস্বস্তিকর। 

নুরুজ্জামান বলল, স্যার খাবেন না? না, বাবার শরীরটা ভাল নাকি হয়েছে?” 

তেমন কিছু নাগা গরমআপনি রাতে যদি কিছু না খান তাহলে শুধু জেগে আছেন কেন? শুয়ে পড়ুন। 

আপনি একা একা খাবেন এই জন্যে বসে আছিআমার জন্যে বসে থাকতে হবে নাআমার একা খেতেই ভাল লাগে। 

স্পষ্ট ইংগীতএরচে স্পষ্ট করে বললে বলতে হয় আপনি দয়া করে উঠে যানতােআমার সামনে ড্যাব ড্যাব চোখে বসে থাকবেন নানুরুজ্জামান বসেই আছেলবনদানী থেকে খানিকটা লবন হাতে নিয়ে আংগুলে করে খাচ্ছেলবন কি একটা খাবার জিনিস

তিথির নীল তোয়ালে-পর্ব-(১৫) হুমায়ূন আহমেদ

নুরুজ্জামান বলল, রাতে ভাত না খাওয়াটা ঠিক নাএতে শরীর থেকে একটা চড়ুই পাখির রক্ত চলে যায়। 

তাই নাকি?” 

গ্রামের কথামা চাচীর মুখে শুনেছিআপনি যা শুনেন তাই বিশ্বাস করেন? জ্বিবিশ্বাস করাই ভালশুধু শুধু অবিশ্বাস করব কেন?” 

আমি যদি বলি, কাল রাতে একটা ভূত এসে আমার খাটের নিচে শুয়েছিল তাহলে বিশ্বাস করবেন

আপনি বললে অবশ্যই করবআপনি শুধু শুধু আমার সঙ্গে মিথ্যা কথা বলবেন কেন?” 

কথার পিঠে কথা বলে যেতে তিথির ভাল লাগছে নাতাছাড়া তাকে আজ অনেক কথা বাবাকে গুছিয়ে বলতে হবেমারুফের সঙ্গে তার সম্পর্ক, মারুফের বাইরে যাবার ব্যাপারঅল্প কদিনের জন্যে যে বিয়ের পর্ব শেষ করতে হবে সেটাতাছাড়া মার সঙ্গেও কথা বলতে হবেছােট মামার টেলিফোন নাম্বার আছেএরিয়া কোড জানা নেইকোথাও নিশ্চয়ই লেখা আছে। 

নুরুজ্জামান হাসি মুখে বলল, পাতা জোগার হয়েছেকি জোগার হয়েছে? পাতাঅশ্বথের পাতাঅশ্বথের পাতা দিয়ে কি করবেন ? পাতার বাঁশি বাজাব

Leave a comment

Your email address will not be published.