তিথির নীল তোয়ালে-পর্ব-(৪) হুমায়ূন আহমেদ

খাবার ঘরের এক কোণায় চারটা মুরগি পায়ে দড়ি বাঁধা অবস্থায় পড়ে আছেএরা কোন শব্দ করছে নাসবকটা একসঙ্গে ঘাড় উচিয়ে তিথিকে দেখছে

তিথির নীল তোয়ালে তিথির মনে হল মুরগিগুলি খুব অবাক হচ্ছে এতদিন তারা গ্রামের ঝোপেঝাড়ে ঘুরে বেড়িয়েছে, আজ হঠাৎ নতলা ফ্ল্যাটেতাদের পায়ের নিচে মাটি নেই আছে শ্যাগ কার্পেট। 

তিথি প্লাস্টিকের একটা বাটিতে খানিকটা পানি এগিয়ে লিচারজনই ঝাপিয়ে পড়ল পানির বাটির উপরআহা বেচারারা ! তৃষ্ণায় নিশ্চয়ই এদের বুক ফেটে যাচ্ছিলমুখ ফুটে বলতে পারছিল নাতিথি খানিকটা চাল এনে দিলখুঁটে খুঁটে চাল খাচ্ছেপা একসঙ্গে বাঁধা থাকায় আরাম করে খেতেও পারছে নাআহাবেচারারা! আহা। 

নিন, চা নিননুরুজ্জামান উঠে দাঁড়িয়ে চায়ের কাপ হাতে নিল। 

ঘরে বিসকিট নেইএক স্লাইস রুটি মাখন লাগিয়ে এনেছিচা খেয়ে একটা কাজ করে দেবেন?‘ 

নুরুজ্জামান বিস্মিত হয়ে বলল, কি কাজ? | মুরগিগুলির পায়ে দড়ি বাঁধাদড়ি খুলে দেবেনকাজের লােকের একটা ঘর আছে রান্নাঘরের পাশেঐখানে ছেড়ে রাখবসারাদিন বাঁধা ছিলখুব মায়া লাগছে। 

তিথির নীল তোয়ালে-পর্ব-(৪)

নুরুজ্জামান বলল, জ্বি আচ্ছা। 

তিথি একটুক্ষণ থেমে থেকে বলল, আপনি যখন দেশে ফিরে যাবেন তখন মুরগিগুলি সঙ্গে নিয়ে যাবেনগ্রামে নিয়ে ছেড়ে দেবেনপারবেন না

জি পারব।’ 

তিথি কৈফিয়ত দেবার ভঙ্গিতে বলল, ওরা ঘাড় ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে আমাকে দেখছিলপানি দিলাম, এত আগ্রহ করে পানি খাচ্ছিলমায়া পড়ে গেছে। নুরুজ্জামান বিস্মিত হয়ে তাকিয়ে আছেকি অদ্ভুত কথা বলছে এই মেয়ে। একটা মানুষকে একা একা খেতে দেয়া যায় নাআবার নিতান্ত অপরিচিত একজন মানুষকে ভাত বেড়ে দিয়ে বসে থাকা যায় নাতিথি টেবিলে ভাতবাড়ছে

জাফর সাহেব জানিয়েছেন তিনি রাতে ভাত খাবেন নাএক গ্লাস লেবুর সরবত খাবেনঘরে লেবু নেইলেবু ছাড়া লেবুর সরবত বানাতে হবেতিথির ধারণা তার বাবা লেবু নেই কেন নিয়েও খানিকক্ষণ হৈ চৈ করবেনতার নিজেরও ক্ষিধে লেগেছেলােকটির খাওয়া শেষ হবার পরই তার খাওয়ার প্রশ্ন আসেসে কতক্ষণ ধরে খাবে কে জানে? গ্রামের মানুষ বেশি খায় কিন্তু সেই বেশি খাওয়াটা দ্রুত খায় ,ধীরে ধীরে খায় তা তার জানা নেই। 

নুরুজ্জামান ইতিমধ্যেই লুঙ্গী পরে মােটামুটি ঘরােয়া ভাব ধরে ফেলেছেলুঙ্গী সাদা হলেও গায়ের গেঞ্জীটা গাঢ় নীলচুলে তেল দেয়ায় মাথা চকচক করছে। 

সে খুব সহজ ভঙ্গিতে টেবিলে খেতে বসলতিথির দিকে তাকিয়ে বলল, কাটা চামচ দিয়ে খাওয়ার অভ্যাস নাই। 

তিথি বলল, আপনাকে কাঁটা চামচ দেয়া হয়নি হাত দিয়েই খাবেনহাত ধােয়ার পানি

আসুন বেসিন দেখিয়ে দেইবেসিনে হাত ধুয়ে নিনহাত ধুয়ে খেতে শুরু করুনআমি বাবাকে এক গ্লাস সরবত বানিয়ে দিয়ে আসিএকা একা খেতে আপনার অসুবিধা হবে নাতাে?” 

জি নাঅসুবিধা কি

তিথির নীল তোয়ালে-পর্ব-(৪)

নুরুজ্জামান তিথির ভদ্রতায় আরেকবার মুগ্ধ হল। 

জাফর সাহেব ভুড়, কুঁচকে বললেন, লেবুর সরবত দিতে বললাম লেবু কোথায়

লেবু নেই বাবাথাকবে না কেন? নিশ্চয়ই আছেভালমত খুঁজে দেখ। 

খুঁজে যদি লেবু পাওয়াও যায় তােমাকে দেয়া হবে নারাতে লেবু খাওয়া ঠিক না পেটে এসিডিটি হয়তােমার এই বয়সে পেটে এসিডিটি হওয়া ঠিক নাপেটে গ্যাস হবেসেই গ্যাস ফুসফুসে চাপ দেবেঅক্সিজেন ফুসফুসে আসতে দেবে না ফলে ব্রেইনে অক্সিজেনের অভাব হবেমাথা ঘুরতে থাকবে এক সময় দেখা যাবে পালস পাওয়া যাচ্ছে না‘ 

জাফর সাহেব অবাক হয়ে মেয়ের দিকে তাকিয়ে রইলেন | আমার কথা তােমার বিশ্বাস হচ্ছে না বাবা?হচ্ছে ” 

তাহলে ভাবে তাকিয়ে আছ কেন? সরবত খাও‘ 

তিনি এক চুমুকে গ্লাস শেষ করলেনতিথিকে গ্লাস ফিরিয়ে দিতে দিতে বললেন, গাধাটা খেয়েছে

খেতে বসেছেতুই খেয়েছিস

নাউনার খাওয়া হলেই খেতে বসবঅবশ্যি ক্ষিধে মরে গেছেখেতে ইচ্ছাও করছে না। একা একা খেতে ভাল লাগে না‘ 

তুই খেতে বসার সময় আমাকে ডাকবিআমি বসব তাের সঙ্গেআমার সঙ্গে তােমার বসতে হবে নাতােমার ঘুম পেয়েছে তুমি ঘুমিয়ে পড়।

নুরুজ্জামান হাত গুটিয়ে বসে আছেএখনাে খেতে শুরু করে নিতিথি অবাক হয়ে বলল, খাচ্ছেন না কেন

নিমক নাইনিমকের জন্যে বসে আছি। 

তিথির নীল তোয়ালে-পর্ব-(৪)

তিথি রান্নাঘর থেকে লবনের বাটি এনে দিললবনকে নিমক বলার অর্থ তার কাছে পরিস্কার হচ্ছে না, পাতে খাবার লবনকে সম্মান দেখিয়ে নিমক বলা হয়কি? অনেকে যেমন দৈ বলে নাবলে দধিবড় সাইজের রই মাছকে রুই মাছ বলে 

, বলে রুহিত মাছতিথি টেবিলের অন্য প্রান্তে বসেছেনুরুজ্জামানের নিমকখাওয়া বেশ আগ্রহ নিয়ে দেখছেখানিকটা লবণ প্লেটের এক কোনায় নিলখানিকটা নিল তর্জুনির মাথায়সেই নিমকজীবে ছুঁইয়ে চোখ বন্ধ করে বিড়বিড় করে কি যেন বললকোন দোয়া হাবএকজন মানুষের সামনে চুপচাপ বসে থাকা যায় নাতিথি বলল, ঢাকায় কদিন থাকবেন?” 

মিনিষ্টার সাহেবের সঙ্গে সাক্ষাত করবতারপর একটু অন্য কাজও আছেআর কি কাজ

একটু ঘুরাফিরা করবঢাকায় আগেও দুইবার এসেছি ঘুরাফিরা করতে পারি নাইদেখার জিনিসেরতে এই শহরে কোন অভাব নাইএইবার ভাবছি যতটা পারি দেখবডায়ানার একটা সন্তান হয়েছেসেইটাও দেখে যাব। 

আপনার কথা বুঝলাম নাকার সন্তান হয়েছে? ডায়ানারডায়ানাটা কে

চিড়িয়াখানায় যে মেয়ে জলহস্তি আছে তার নাম ডায়ানাখবরের কাগজে দেখেছি ডায়ানার একটা পুত্র সন্তান হয়েছেআগে একটা কন্যা হয়েছিল। 

আচ্ছাআপনি তাহলে চিড়িয়াখানা শিশুপার্ক এই সব ঘুরে ঘুরে 

দেখবেন ?

শিশুপার্ক দেখব নাগতবার দেখে গেছিবড় ভাল লেগেছিলভাল ভাল জিনিষতে বার বার দেখা যায়তাও ঠিকখেতে পারছেনতাে

জি পারছিপারব না কেন? গ্রাম দেশে এত পদ দিয়ে তাে কখনাে খাই নাদুইটা পদ থাকেতরকারী ডালকোনকোনদিন ভাজি আর ডাল। 

ঢাকার কাজ কর্ম সারতে আপনার তাহলে কিছু সময় লাগবে

তিথির নীল তোয়ালে-পর্ব-(৪)

দ্ধি লাগবেআমাদের এলাকায় একজন লােক আছে টেলিভিশনে কাজ করেউনার সাথেও একটু দেখা করবউনার ঠিকানা আনতে আবার ভুলে গেছিএই নিয়ে একটু দুঃশ্চিন্তাগ্রস্ততবে টেলিভিশনে গেলে নিশ্চয়ই উনার ঠিকানা পাব। 

হা পাবেন। 

উনি বলেছিলেন ঢাকায় আসলে যেন তার সঙ্গে দেখা করিপারলে আমাকে একটা সুযােগ করে দিবেন বলেছিলেন। 

তিথি বিস্মিত হয়ে বলল, কিসের সুযোগ

নুরুজ্জামান সহজ গলায় বলল আমি পাতার বাঁশি বাজাতে পারিউনি শুনেখুব খুশি হয়েছিলেনতখন ঠিকানা দিয়ে বলেছিলেন বাচ্চু মিয়া ঢাকায় আসলে দেখা করবেনআমার ডাক নাম বাচ্চু

Leave a comment

Your email address will not be published.