তিন অজি ক্রিকেটার নিষিদ্ধ করেছে অস্ট্রেলিয়া।

আগে থেকে এমনটাই ধারণা করা হয়েছিল। বল টেম্পারিংয়ের ঘটনায় নিষিদ্ধ হতে পারেন তিন অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার। শেষ পর্যন্ত তাই হয়েছে, অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ, সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার ও ক্যামেরন ব্যানক্রফটকে নিষিদ্ধ করেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী জেমস সাদারল্যান্ড এরই মধ্যে এক সংবাদ সম্মেলনে তা নিশ্চিত করেছেন।

এমন সমালোচিত ঘটনায় হতাশ ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। তাই তদন্তের জন্য একটি টিম পাঠায় দক্ষিণ আফ্রিকায়। তাদের তদন্তের পরিপেক্ষিতে স্মিথ ও ওয়ার্নারকে সবধরনের ক্রিকেট থেকে এক বছরের জন্য  নিষিদ্ধ করা হয়েছে এবং ওপেনার ক্যামেরন ব্যানক্রফটকে ৯ মাসের জন্য নির্বাসন দিয়েছে অজি ক্রিকেট বোর্ড। তদন্তে দোষী প্রমাণিত হয়েছেন বলে আজই দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দেশে ফিরে যাচ্ছেন এই তিন ক্রিকেটার। তাদের জায়গায় দলে ফিরেছেন ম্যাট রেনশ, জো বার্নস ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

অন্যদিকে ব্রিটিশ দৈনিক দ্য টেলিগ্রাফ টেলিগ্রাফ জানিয়েছিল, লেম্যান পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন। তবে সাদারল্যান্ডের বলেন কোচের ভবিষ্যৎ নিয়ে সংশয় নেই। পদত্যাগ যেহেতু তিনি করেননি, সে কারণেই কোচ হিসেবে কাজ করে যাবেন তিনি।

অজি-প্রোটিয়া টেস্ট সিরিজের তৃতীয় ম্যাচের তৃতীয় দিনে কেপটাউন টেস্টে বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগ ওঠে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে। পুরো ব্যাপারটি ধরা পড়ে টেলিভিশন ক্যামেরায়। ভিডিওতে দেখা যায় ব্যানক্রফট হলুদ টেপ জাতীয় কিছু হাতে নিয়ে বল ঘষতে।

পরে অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ সংবাদ সম্মেলনে স্বীকার করেন বল বিকৃতির পরিকল্পনার কথা। বলেন এই সিদ্ধন্তটি ছিল দলগত। টেম্পারিংয়ের বিষয়টি আলোড়ন তুলেছে গোটা ক্রিকেট দুনিয়ায়।

স্মিথ না থাকায় দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের শেষ টেস্টে অস্ট্রেলিয়াকে নেতৃত্বে দেবেন টিম পেইন।

Leave a comment

Your email address will not be published.