তেঁতুল বনে জোছনা-পর্ব-(১২) হুমায়ূন আহমেদ

ইচ্ছা আছে কিন্তু নানান ঝামেলায় জড়াইয়া পড়ছিবাজারে আরেকটা নয়া ঘর নিছি। 

বাজারে ঘর নিয়েছ ? জ্বি, দলিল রেজিস্ট্রি হয়ে গেছেভালাে তােতেঁতুল বনে জোছনা

জহির খাঁ পানের পিক ফেললেনতার কপালে সামান্য ভাঁজ পড়লবিরাটনগরে অনেক কিছুই ঘটছে যার খোজ তিনি রাখেন নাবাজারে ঘর রেজিস্ট্রি হয়ে গেছে সেই খবরও তিনি পান নি এটা অবিশ্বাস্য ঘটনাআজিজ মিয়া তলে তক্টে সুড়ং কেটে এগিয়ে যাচ্ছেলােকটা অতি বুদ্ধিমানছােটলােকের হাতে হঠাৎ পয়সা এলে নানান আলামত দেখা যায়এরা তখন বড় কাৰ্প মাছ ছাড়া ভাত খেতে পারে নাআড়ংষাড়ের লড়াইয়ের জন্যে আঁড় কিনে ফেলে। সপ্তাহে দুই দিন যায় নেত্রকোনা ছবি দেখার জন্যে। আজিজ মিয়া তার কিছুই করছে নাজমি কিনছে, বাজারে ঘর রাখছেতিনি খবর পেয়েছেন আজিজ মিয়া ব্যবসা ভালােই বুঝেসরিষার ব্যবসা করে এই বৎসর অনেক টাকা কামিয়েছে। 

স্কুলের দপ্তরি নাশতা নিয়ে এলধামাভর্তি মাখানাে মুড়িপেঁপেঈশ্বর বাবু বিনীত গলায় বললেন, চেয়ারম্যান সাব নাশতা করেনচা আসতেছেগুড়ের রং চা করতে বলেছিগুড়ের চা আপনার পছন্দ। 

জহির খা হাই তুলতে তুলতে বললেন, তােমরা খাও। আমার মুখে পান| ঈশ্বর বাবু নিচু গলায় বললেনভালাে নাশতার আয়ােজন করার ইচ্ছা ছিলস্কুল ফান্ডের অবস্থা শােচনীয়ক্লাসটেনে ছাত্র মাত্র সাতজন। 

জহির খা গম্ভীর গলায় বললেন, ছাত্র কম কেন? পড়াশােনা ভালাে হয় ? | ঈশ্বরচন্দ্র হতাশ গলায় বললেনযে সব স্কুলে সেন্টার পায় সেখানে ছাত্র হয়নকলের সুবিধা হয় কিনা সেটা সবেই আগে দেখেখুবই দুর্দশায় আছিঅঞ্চলের বিশিষ্ট গণ্যমান্যরা যদি না দেখে তাহলে স্কুল উঠায়ে দিতে হবে। 

দাও উঠায়ে দাওসবকিছুর জন্ম মৃত্যু আছেস্কুলেরও আছেআফসােস কইরা তাে লাভ নাইআগে রাজা বাদশা ছিল, তারা হাতি পুষতস্কুল কলেজ এইগুলা হইল হাতিএখন রাজা বাদশা নাইহাতিও থাকব নাসােজা হিসাব। 

আজিজ মিয়া অতি দ্রুত মাথা নাড়তে নাড়তে বলল অবশ্যই অবশ্যইস্কুলের শিক্ষকরা আহত চোখে তাকিয়ে রইল আজিজ মিয়ার দিকে। 

জুম্মঘরের ইমাম সাহেবকে আসতে দেখা গেলচেয়ারম্যান সাহেব তার মনযােগ সেই দিকে দিলেনএকসঙ্গে অনেক কিছু নিয়ে চিন্তা ভাবনা করতে নাইচিন্তা ভাবনা হলাে পুতির মালার মতােএকেকটা চিন্তা একেকটা পুতিআর সুতাটা হলাে চিন্তার লাইনসব পুতি এক লাইনে বাধতে হয়এই কাজ সবাই পারে না ইমাম সাহেবের কাছে গত রাতে তিনি লােক পাঠিয়েছিলেনলােক মারফত তিনি একটা প্রস্তাব দিয়েছেনইমাম যদি অপরাধ স্বীকার করে তাহলে তিনি তাকে নেংটা করে ঘুরাবেন নাদোষ স্বীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা করলে ইমামের চাকরি বহাল থাকার সম্ভাবনা আছেদোষ স্বীকার না করলে শাস্তি হবে। 

ইমাম সাহেবের চোখ রক্তবর্ণতিনি গত কয়েক রাত ধরে ঘুমাচ্ছেন না তা তাকে দেখেই বুঝা যাচ্ছেঠিকমতো হেঁটে আসতেও পারছেন নামাতালের মতাে হেলে দুলে এগুচ্ছেনজুম্মার নামাজের দিন তিনি যে পােশাক পরেন আজও তাই পরেছেন কালাে আচকান, মাথায় সাদা পাগড়িসাদা পাগড়ির সঙ্গে কালাে আচকান খুব মানিয়েছে, তাকে সুফি সুফি লাগছেআজ তিনি চোখে সুরমাও পরেছেনঅন্য যেকোনাে সালিশির দিনে ইমাম সাহেব আসা মাত্র তাঁকে চেয়ার দেয়া হয়আজ দেয়া হলাে নাতিনি জহির খাঁর সামনে। দাড়িয়ে রইলেনতার চোখে মুখে দিশাহারা ভাব। 

ইমাম সাহেবের নাম ইয়াকুবউলা পাসবয়স পঞ্চাশের ওপরেতিনি পাঁচ বছর হলাে বিরাটনগরে আছেনতার বাড়ি মধুপুরস্ত্রী এবং দুই কন্যা মধুপুরেই থাকেতিনি মাঝে মধ্যে মধুপুর তাদের দেখতে যানবছর দুই আগে ইমাম সাহেবের স্ত্রী তার দুই কন্যাকে নিয়ে এখানেও বেড়াতে এসেছিলেনএক সপ্তাহ ছিলেনগ্রামের মানুষজন তখন তার দুই কন্যার রূপ দেখে মােহিত হয়েছিলবড় মেয়েটির নাম সকিনা, ছােটটির নাম জরিনা। গ্রামের মানুষজন এখনাে কোনাে রূপবতী মেয়ে দেখলে বলেইমাম সাহেবের বড় মেয়ে সকিনার মতাে সুন্দর। 

সকিনার বিয়ে ঠিক হয়েছেপানচিনি হয়ে গেছেকার্তিক মাসের নয় তারিখ বিবাহছেলে সরকারি কলেজে অংকের লেকচারারইমাম সাহেব 

কন্যার বিবাহ উপলক্ষে এক মাসের ছুটি নিয়েছেনদেশে রওনা হবার আগে এমন বিপত্তি। 

চারদিকে গুনগুন হচ্ছিলঈশ্বর বাবু উঠে দাঁড়িয়ে উঁচু গলায় বললেন সাইলেন্সপিনড্রপ সাইলেন্সগুনগুনানি বন্ধ হলােজহির খার পাঞ্জাবিতে পানের পিক লেগে গেছেতিনি খুবই বিরক্ত চোখে পানের পিকের দিকে তাকিয়ে আছেনইমাম সাহেব ফ্যাসফ্যাসে গলায় বললেন, চেয়ারম্যান সাব আসসালামু আলায়কুম| সালাম দিলে নিতে হয়এটাই নিয়ম

জহির খা নিয়মের ব্যতিক্রম করলেনসালাম নিলেন নাশব্দ করে মেঝেতে পানের পিক ফেললেনগলা খাকারি দিয়ে শুকনাে গলায় বললেনআপনি চিন্তা ভাবনা কিছু করেছেন? অপরাধ স্বীকার করলে ভিন্ন বিবেচনা । 

ইমাম সাহেব কাপা কাঁপা গলায় বললেন, আমি কোনাে অপরাধ করি নাইআল্লা সাক্ষি আমার দুই কান্দের দুই ফেরেশতা সাক্ষি আমি নিরপরাধ । 

জহির খাঁ বিরক্ত মুখে বললেন, আপনের দুই কান্দের দুই ফিরিশতা তাে সাক্ষি দিবে নাএদের কথা খামাখা বইল্যা তাে লাভ নাইআপনে বিরাট অন্যায় করেছেনএই অঞ্চলের নাম বিরাটনগরএইখানে যা হয় সবই বিরাটমানুষ যখন অন্যায় করে ছােট অন্যায় করতে পারে নাবিরাট অন্যায় করেআপনি দোষ স্বীকার না করলে যে শাস্তির কথা বলেছিলাম সেই শাস্তি দিবআপনে বড় অপমান হবেন। 

ইমাম সাহেব কাঁদো কাঁদো গলায় বললেন, আমি কোনাে দোষ করি নাই, কিন্তু তারপরও দোষ স্বীকার করলাম। 

প্যাচের কথায় কাজ হবে না ইমাম সাহেবদোষ করি নাই কিন্তু দোষ স্বীকার করলাম এটা কেমন কথা ? আমি বিবাহ করি নাই কিন্তু সে আমার বিবাহীত স্ত্রীএইটা কি হয় ? | লােকজন হাে হাে করে হেসে ফেললজহির খা সেই হাসিতে যুক্ত হলেন নাতিনি গম্ভীর মুখে বললেনআপনি যে পাপ করেছেন সেই পাপ ব্যাভিচারের চেয়েও খারাপ

আমাদের ধর্মে যে ব্যাভিচার করে তার শাস্তি কী জানেন নিশ্চয়ইগর্ত খুঁড়ে তাকে চুকানাে হয়তারপরে পাথর ছুঁড়ে মারা হয় আমি সে রকম কিছু করব নাকাপড় চোপড় খুলে কানে ধরে আপনাকে চক্করদেওয়াবশাস্তি শেষএখন শেষবারের মতাে জিজ্ঞেস করতেছি আপনি কি অপরাধ করেছেন

জ্বি করেছিআপনি কি সবের কাছে ক্ষমা চান ? জ্বি চাইতাহলে প্রথম কেন বললেন দোষ করেন নাই

আমি দোষ করি নাই এইজন্যে বলেছি দোষ করি নাইএখন কেন বলতেছেন দোষ করছেন? অপমানের হাত থেকে বাচার জন্যে বলতেছি। 

অর্থাৎ আপনি স্বীকার করেন না যে দোষ করেছেন ? শেষ জবাব দেনআমি আর ছওয়াল জবাব করতে পারব নাহ্যা কিংবা না বলেনদোষকরেছেন

জ্বি নাদোষ তাহলে করেন নাই ? ইমাম সাহেব হড়বড় করে বললেন দোষ করেছি। 

জহির খা কঠিন গলায় বললেনআপনে তাে একেকবার একেক কথা বলতেছেন। 

জনাব আমার মাথাটা আওলায়ে গেছে

Leave a comment

Your email address will not be published.