পাখি আমার একলা পাখি-পর্ব-(২)-হুমায়ুন আহমেদ

ভদ্রলােকের নাম রইসুদ্দিনআমাদের অতি দূর সম্পর্কের আত্মীয়কিন্তু কথাবার্তা শুনে মনে হয় আমাদের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠতাঁকে যে আমরা বারান্দায় ফেলে রেখে অপমান করার চেষ্টা করছি, এটা তিনি বুঝেও না বােঝার ভান করেন

রইসুদ্দিন চাচা আমাকে দেখেই উঠে বসলেনছােটখাটো মানুষমামলা মােকদ্দমা করে যেন আরাে ছােট হয়ে গেছেনগালভর্তি কাঁচাপাকা দাড়ি না থাকলে তাঁকে বাচ্চা ছেলের মতােই লাগততিনি হাসিমুখে বললেন, আব্বাজীর ঘুম ভাঙল

তিনি আমাকে ডাকেন আব্বাজী, আমার বােন মুনিয়াকে আম্মা এবং রূপাকে ডাকেন আম্মাজীআমার সবচেছােট ভাই বাবুকে শুধু নাম ধরে ডাকেনতার বেলায় এই ব্যতিক্রম কেন কে জানেকারণ একটা নিশ্চয়ই আছেরইসুদ্দিন চাচার মতাে ধুরন্ধর লােক বিনা কারণে কিছু করবেন নাএঁরা প্রতিটি কাজকর্মভেবেচিন্তে করেন। 

তিনি আগের প্রশ্নই আবার করলেনএবারে মুখের হাসি আগের চেয়েও বিস্তৃত হল। 

আব্বাজীর ঘুম ভাঙল ?” 

ঘুম হইছে কেমন?ভাল। 

আমারাে ঘুম ভাল হইছেফুরফুরা বাতাসঠাণ্ডা ঠাণ্ডা ভাবকম্বল গায়ে দিয়ে লম্বা ঘুম দিলাম শেষরাতে একটা স্বপ্ন দেখলামস্বপ্ন দেখার পর মনটা আরাে ভাল হয়ে গেছেবড়ই মধুর স্বপ্ন। 

পাখি আমার একলা পাখি-পর্ব-(২)-হুমায়ুন আহমেদ

কেউ স্বপ্নের কথা বললে কি স্বপ্ন দেখা হয়েছে জানতে চাওয়াটা সাধারণ ভদতাএই মানুষটার সঙ্গে ভদ্রতা করতে আমার বিন্দুমাত্র ইচ্ছা করছে নাতবু অভ্যাসের বসে বললাম, কি স্বপ্ন দেখলেন? কি দেখলাম শাদা একটা সাপগ্রামদেশে এই সাপরে বলে দুধরাজএই সাপ 

আমার হাঁটুতে একটা ছােবল দিল। বিষ যা ছিল সব ঢেলে দিলমানুষের কথা শুনে আমি কখনাে বিস্মিত হই নাবিশেষ করে এইসব ধুরন্ধর মানুষ কথাবার্তায় সবসময় অন্যদের চমৎকৃত করতে চেষ্টা করেআমি বুঝতে পারছি রইসুদ্দিন চাচা কথাবার্তায় আমাকে কিছুক্ষণ আটকে রাখার চেষ্টা করছেনতিনি হয়তাে ভাবছেন আমি অবাক হয়ে বলব এরকম ভয়াবহ একটা স্বপ্ন দেখে আপনার মনটা খুশি হয়ে গেল কেন? তার উত্তরে তিনি আরাে চমকপ্রদ কিছু বলবেনআমি তাঁকে সেই সুযােগ দিলাম নাসিঁড়ি দিয়ে একতলায় নেমে গেলামসাপ কামড় দিয়েছে এই স্বপ্ন দেখে কেউ যদি আনন্দে আত্মহারা হয়হােকমুখে আবার থুথু জমেছেতাে বড় যন্ত্রণা হল

রান্নাঘরে মুনিয়া ছাঁকনি দিয়ে অর্জুন গাছের রস ছাঁকছেবাবার কবিরাজী ওষুধতাঁর হার্টের কি সব সমস্যাকবিরাজ বলেছে অর্জুন গাছের ছাল সেদ্ধ করে সেই রস খেতেঅর্জুন গাছের সব ছাল নয়গাছের পুবদিকের ছাল, যেখানে সূর্যের প্রথম রশ্মি পড়েমাখন বলে আমাদের যে কাজের ছেলেটি আছে, তার কাজই হচ্ছে সাইকেলে করে দূরদূরান্ত থেকে অর্জুন গাছের ছাল নিয়ে আসামাখনের কোনাে কাজে উৎসাহ নেইএই কাজটিতে খুব উৎসাহসে ঢাকা শহরের আশেপাশের সব অর্জুন গাছের ছাল ছাড়িয়ে ফেলেছে বলে আমার ধারণাছাল ছাড়ানাে অর্জুন গাছ দেখতে কেমন হয়? মাখনার সঙ্গে একদিন দেখে আসতে হবে। 

পাখি আমার একলা পাখি-পর্ব-(২)-হুমায়ুন আহমেদ

মুনিয়াকে কেমন যেন অন্যমনস্ক মনে হচ্ছেমুখ শুকনােচোখের নিচে কালিমন হয়তাে খারাপএটা কোনাে অস্বাভাবিক ব্যাপার নামুনিয়ার মন বেশির ভাগ সময়ই খারাপ থাকেবছর দুই হল স্বামীর সঙ্গে তার ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছেভদ্রলােক আবার বিয়ে করেছেনস্ত্রীকে নিয়ে ঢাকা শহরেই থাকেনতাদের সঙ্গে 

দেখা হয়ে যেতে পারে এই ভয়ে মুনিয়া ঘর থেকে বের হয় নাঘরে থেকে থেকে বেচারি ফর্সা হয়ে গেছে। 

মুনিয়া অর্জুন গাছের রস ছাঁকতে ছাঁকতে রােবটদের মতাে গলায় বলল, ভাবীর ঘুম এখনাে ভাঙেনি? নাতােকে কফি আর একটা মাখন লাগানাে ক্র্যাকার পাঠাতে বলেছেকফিতে তিন চামচ চিনিদু চামচ উচু করে আর এক চামচ সমান সমান। 

আর কিছু?ঠাণ্ডা এক গ্লাস পানিআইস কোল্ড। 

মুনিয়া মুখ টিপে হাসলআমিও হাসলামমুনিয়া আমার পিঠাপিঠিওর সংঙ্গে আমার সহজ সম্পর্কের একটা ব্যাপার আছেআমি ওর সামনের চেয়ারে বসতে বসতে বললাম, মন খারাপ না কি রে

মুনিয়া হালকা গলায় বলল, বাসিমুখে আমার সামনে বসিস নাদেখেই বমি বমি লাগছে। 

আমি নড়লাম নাগলার স্বর অনেকটা নামিয়ে বললাম, আজ একটা দারুণ ডিসিশান নিলাম। 

কি ডিসিশান?” 

একটা খুন করব“তাই নাকি?হ্যা, এটা হবে একটা পারফেক্ট মার্ডারকেউ বুঝতেও পারবে না খুন হয়েছে। 

পাখি আমার একলা পাখি-পর্ব-(২)-হুমায়ুন আহমেদ

মুনিয়া মােটেও বিস্মিত হল নাসে যে বিস্মিত হবে না আমি জানতামসে ভাবছে আমি রসিকতা করছিএটা ভাবাই যুক্তিযুক্তযে খুন করবে সে সবাইকে বলে বেড়াবে না। 

কাকে খুন করবি কিছু ঠিক করেছিস?হঁ্যা, সব ঠিক করা আছেআমার কাছে সাজেশান চাইলে দিতে পারিকি সাজেশান ?রইসুদ্দিন চাচাকে খুন করে ফেল। 

মুনিয়া কথা শেষ করে আমার দিকে তাকিয়ে রইল। সে আশা করছে আমি বলব, রইসুদ্দিন চাচা কি করেছে

আমার কাছ থেকে কেউ যা আশা করে, আমি তা করি নাকাজেই কিছুই বললাম নাউদাস চোখে বারান্দায় লাগােয়া সজনে গাছের দিকে তাকিয়ে রইলামসজনে গাছটা মরতে বসেছেগাছের মৃত্যুও একটা দেখার মতাে ব্যাপারকিছু কিছু 

গছি হঠাৎ করে মরে যায়ওদেরও মনে হয় হার্ট এ্যাটাকের মতাে অসুখ আছেআবার কিছু কিছু গাছ দীর্ঘদিন রােগ ভােগ করে মরেএই গাছটা অল্প অল্প করে মরছেগাছের কোনো ডাক্তার থাকলে তাকে এনে চিকিৎসা করাতাম। 

রইসুদ্দিন চাচা কি করেছেন জানিস? 

মতির মা আমাকে বলল, ওদের যে বাথরুম রহসুদ্দিন চাচাকেও সেই বাথরুম ব্যবহার করতে হয়বাথরুমের দরােজায় একটা ফুটোমতির মা গােসল করছে, হঠাৎ দেখে সেই ফুটো দিয়ে রইসুদ্দিন চাচা তাকিয়ে আছেনকি রকম ঘেন্নার কথা বল তাে

পাখি আমার একলা পাখি-পর্ব-(২)-হুমায়ুন আহমেদ

মতির মা কি ওনাকে কিছু বলেছে? নাভাবছি আমি বলবঅবশ্যি সবচেভাল হয় তুই বললেপাগল, আমি এইসব বলাবলির মধ্যে নেইখুন করার কথা হলে ভিন্ন কথা। 

আমি নিজের ঘরে চলে এলামরুপা এখনাে শুয়ে আছেআমাকে ঢুকতে দেখেই বলল, কফির কথা বলেছ ? বলেছি। 

পানি আননি, ঠাণ্ডা পানি ? ? কফির সঙ্গে আসবে

Leave a comment

Your email address will not be published.