পিছিয়ে গেল টি -টুয়েন্টি বিশ্বকাপ 

অস্ট্রেলিয়ায় এ বছরের অক্টোবর – নভেম্বর মাসে টি – টুয়েন্টি বিশ্বকাপের সপ্তম আসর হওয়ার কথা ছিল ।  মহামারী করোনাভাইরাস এর কারণে এবারের টি – টুয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে ছিল চরম অনীশ্চয়তা । অন্তত দুই  মাস এ নিয়ে সিদ্ধান্ত ঝুলিয়ে রাখার পর অবশেষে সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে আইসিসির বাণিজ্যিক সংস্থা আইবিসি বোর্ডের এক সভায় সিদ্ধান্ত ঘোষণা করা হয় । আইসিসির ভার্চুয়াল সভায় এ বছরের টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ এক বছর পিছিয়ে আগামী বছর আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে । ২০২১ সালের অক্টোবর – নভেম্বর মাসে আয়োজিত হবে টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপের সপ্তম আসর । টুর্নামেন্টের ফাইনাল ১৪ই নভেম্বর । ২০২১ সালের টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপের ৮ম আসর অনুষ্ঠিত হবে ২০২২ সালের অক্টোবর – নভেম্বর মাসে । ফাইনাল ম্যাচটি হবে ১৩ই নভেম্বর ।

আইসিসির বোর্ড সভায় ২০২৩ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের সূচিও পরিবর্তন করা হয়েছে । ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারী – মার্চের পরিবর্তে একই বছরের অক্টোবর – নভেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বকাপ । ওয়ানডে বিশ্বকাপের ফাইনালের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ২০২৩ সালের ২৬ নভেম্বর ।

একটি বড় সিদ্ধান্ত এখনও ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে । আগামী দুটি টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ হবে কারা সেটি নির্ধারণ করা হয় নি এখনও । এবার পিছিয়ে যাওয়া আসর আগামী বছরই আয়োজনে আগ্রহী অস্টেলিয়া।কিন্ত্ত ভারত আগের সিদ্ধান্ত ‍অনুযায়ী ২০২১ সালের আসর আয়োজন করতে চায় ।

টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ স্থগিত হওয়ায় সুবিধা হয়েছে ভারতীয় কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) । আইপিএল আয়োজনে তাদের আর কোনো বাঁধা থাকল না । পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলেও ভারতের পরিবর্তে সংযুক্ত আরব আমিরাতে সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বরের মধ্যে আইপিএল অনুষ্ঠিত হতে পারে।আইপিএল না হলে প্রায় ৪ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব হারাতো ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড  ।

Leave a comment

Your email address will not be published.