বৃষ্টি বিলাস (পর্ব-১২)- হুমায়ূন আহমেদ

এশা কি বাসায় আছে? জানি নাআতাউর অস্বস্তির সঙ্গে এদিকে ওদিকে তাকাচ্ছেবৃষ্টি বিলাসশামা বলল, আপনি দ্রুত মন ঠিক করুনএতক্ষণ রাস্তার ওপর দাঁড়িয়ে কথা বলা যায় নাদেখুন না সবাই তাকাচ্ছে আমাদের দিকে। তুমি কি যেতে বলছ ? আমি কিছুই বলছি নাযা বলার আপনিই বলছেনচল যাই। দু’টা রিকশা ঠিক করুনএকটায় আমি যাব, পেছনে পেছনে আপনিযাবেন। 

তােমার মা কিছু মনে করবেন নাতাে ? শামা জবাব দিল নাতার খুবই বিরক্তি লাগছে। বাইরের বারান্দার কাঠের চেয়ারে আতাউরকে বসিয়ে শামা ঘরে ঢুকলআশ্চর্য ব্যাপার বাসা খালি! সুলতানা তার ঘরে দরজা ভেজিয়ে শুয়ে আছেনএশা নেই, মন্টু নেইকাজের মেয়েটা বাথরুমে কাপড় ধুচ্ছেসদর দরজাও খােলাযে কেউ দরজা খুলে টিভি ভিসিআর নিয়ে চলে যেতে পারত। 

সুলতানা মেয়েকে দেখে উঠে বসলেনশামা বলল, মা শরীর খারাপ? সুলতানা বললেন, সামান্য গা গরম। 

তােমাকে বিছানা থেকে নামতে হবে নাশুয়ে থাকএশা কোথায় ? মন্টু কোথায়

মন্টু কোচিং সেন্টারে। সন্ধ্যাবেলায় আসবেএশা কখন আসবে কিছু বলে যায় নি। 

দুপুরের খাবার কী ? ডাটা দিয়ে চিংড়ি মাছ আর কিছু নেই

ডাটা দিয়ে চিংড়ি মাছতাে তাের পছন্দভাজা ভুজি কিছু কর নি

 ডাল আছেঘরে কি বেগুন আছে মা

বেগুন আছেবেগুন ভাজা খাবি

হুঁতােমাকে বেগুন ভাজতে হবে নাকাজের মেয়েটাকে বলে দাওআর একটু আলু ভাজিও করতে বল। দুপুরে একজন গেস্ট খাবে। 

শামা জবাব না দিয়ে হাসলসুলতানা গেস্টের ব্যাপারটায় গুরুত্ব দিলেন শামার বান্ধবীদের কেউ কেউ হঠাৎ এসে পড়ে বলেভাত খাবতেমনই কেউ হবেসুলতানা বললেন, আগে খবর দিয়ে রাখলেতাে গােশত রান্না করতাম। 

বৃষ্টি বিলাস (পর্ব-১২)- হুমায়ূন আহমেদ

শামা বলল, আমার এক হাজার টাকা তুমি আজ আমাকে দেবেদুপুরে খাবার পর আমি উপহার কিনতে যাবভয় নেই একা যাব না, দুপুরে যে গেস্ট আমার সঙ্গে খাচ্ছে তাকে সঙ্গে করে নিয়ে যাবআর বাসায় ফিরব নাবিয়ে বাড়িতে চলে যাবসারা রাত থেকে পরদিন ফিরব। 

আজ রাতেই বিয়ে ? | হ্যাআজ ১৭ তারিখ না ? কোনাে সমস্যা নেই মাবাবার কাছ থেকে পারমিশন নেয়া আছে। 

উপহার কিনেই বিয়ে বাড়িতে যাবার কোনাে দরকার নেইবাসায় ফিরবি, তাের বাবাকে বলে তারপর যাবিতাের বাবা তােকে পৌছে দিয়ে আসবে। 

আমাকে বাসায় ফিরতেই হবে

অবশ্যইতাের বাবার সঙ্গে দেখা না করে গেলে সে কী হৈচৈটা করবে বুঝতে পারছিস না? বিয়ে বাড়িতে উপস্থিহবেতুই তাের বাবাকে চিনিস 

আমার ধারণা বিকেলে না ফিরলে বাবা খুশিই হবেনযাই হােক, মা তুমি কাজের মেয়েটাকে ইন্সট্রাকসন দিয়ে দাওদেখি তােমার জ্বরের অবস্থাজ্বর আছেতুমি শুয়ে থাক। বিছানা থেকে নামবে না। 

আতাউর চুপচাপ বারান্দায় বসে আছেবাড়িতে হঠাৎ এসে সে যতটা অস্বস্তি বােধ করবে বলে ভেবেছিল ততটা অস্বস্তি বােধ করছে নাবরং ভাল লাগছেবাড়ির বারান্দাটা সুন্দর বাড়ির সামনে অনেক গাছপালা থাকায় রাস্তা থেকে কিছু দেখা যায় নাসে বসে আছে বাইরের বারান্দায় অথচ তার কাছে মনে হচ্ছে সে বাড়ির ভেতরেই বসে আছেতাকে কেউ দেখতে পাচ্ছে না, সে সবাইকে দেখছেশামা বারান্দায় এসে দাঁড়ালআতাউর সঙ্গে সঙ্গে চেয়ার ছেড়ে উঠে দাঁড়ালশামা বলল, আমাকে দেখে উঠে দাঁড়ালেন কেন

আতাউর বলল, বুঝতে পারছি না কেনমনে হয় অভ্যাস বলে। 

শামা বলল, এখন বাজে প্রায় দুটাচা না খেলে হয় না? হয়আমার চায়ের তেমন অভ্যাসও নেইএক গ্লাস ঠাণ্ডা পানি দাও। 

বৃষ্টি বিলাস (পর্ব-১২)- হুমায়ূন আহমেদ

আমাদের বাসায় ফ্রিজ নেইবাড়িওয়ালা চাচার বাসায় আছেআমি ঠাণ্ডা পানি এনে দিচ্ছিআপনি খেয়ে চুপচাপ আধঘণ্টার মতাে বসে থাকতে পারবেন

হ্যা পারবশােন ঠাণ্ডা পানি লাগবে নানরম্যাল পানি দিলেই হবে। 

আপনি আধঘণ্টা বসে থাকবেনআধঘণ্টার মধ্যে আমি গােসল সারবতারপর আপনি আমার সঙ্গে ভাত খাবেন। 

না না ভাত খাবার দরকার নেই। 

দুপুরবেলা আপনি এসেছেন, আর আমি আপনাকে ভাত না খাইয়ে ছেড়ে দেব ? অসম্ভবআপনি আমার সঙ্গে ভাত খাবেন তারপর আমি আপনাকে নিয়ে বের হব। 

কোথায় যাবে

আমার এক বান্ধবীর আজ বিয়েতার জন্যে গিফট কিনবআপনি সঙ্গে থাকবেন। তারপর আপনি আমাকে বান্ধবীর বাসায় পৌছে দেবেনবান্ধবীর বাড়ি উত্তরায়পারবেন না

পারবআমার কাণ্ডকারখানা কি আপনার কাছে খুব অস্বাভাবিক লাগছে ? না। 

মা এখনাে জানে না যে আপনি এসেছেনমাকে আমি এখনাে কিছু জানাই নিআপনাকে যখন খাবার জন্যে ভেতরে ডাকব তখনি মা প্রথম দেখবে এবং বিরাট একটা ধাক্কার মতাে খাবেতার মনও খুব খারাপ হবে। 

মন খারাপ হবে কেন

মন খারাপ হবে কারণ আজ দুপুরে খাবার আয়ােজন খুব খারাপমা আপনাকে দেখে কি চমকানিটাই না চমকাবে! এটা ভেবেই আমার ভাল লাগছে। 

তুমি মানুষকে চমকে দিয়ে মজা পাও? হ্যা খুব মজা পাইপত্রিকা দেব ? বসে বসে পত্রিকা পড়বেন ? কিছু দিতে হবে নাতুমি গােসল করে আস। 

এর মধ্যে যদি এশা চলে আসে তাহলে এশাকে অবশ্যি বলবেন আপনার কথা যেন মাকে কিছু না বলেবলতে পারবেন না

পারব। 

বৃষ্টি বিলাস (পর্ব-১২)- হুমায়ূন আহমেদ

বাথরুমে ঢােকার মুখে সুলতানা মেয়েকে ধরলেনবিস্মিত গলায় বললেন, তুই কার সঙ্গে কথা বলছিলি

শামা সহজ গলায় বলল, আমিতাে আগেই বলেছিআমার গেস্টদুপুরে খাবে। 

পুরুষ মানুষ তাের গেস্ট মানে ? পুরুষ মানুষ আমার গেস্ট হতে পারে না

সুলতানা চাপা গলায় বললেন, হাসবি না শামারঙ্গ রসিকতাও করবি না। এই ছেলে কে

আমার পরিচিত। 

কোন সাহসে তুই তাকে নিয়ে বাসায় উপস্থিত হলি ?

Leave a comment

Your email address will not be published.