বৃষ্টি বিলাস (পর্ব-১৬)- হুমায়ূন আহমেদ

আপার একটা মাকড়সার ধাঁধা আছেধাঁধাটা সে সবাইকে জিজ্ঞেস করেআপনাকেও জিজ্ঞেস করবে। আপনার বুদ্ধি টেস্ট করার জন্যে জিজ্ঞেস করবেধাধার উত্তর দিতে না পারলে আপার মন খারাপ হবে। সে ভেবেই নেবে আপনার বুদ্ধি কমবৃষ্টি বিলাসআমি পারব নাএম্নিতেই আমার বুদ্ধি কম। ধাধার বুদ্ধি আরাে কম। 

মাকড়সার ধাঁধাটা আপনি পারবেনকারণ আমি উত্তরটা শিখিয়ে দিচ্ছিউত্তরটা হলাে মাকড়সা দুরকমের সুতা দিয়ে জাল বানায়এক রকমের সুতা থাকে আঠা লাগানােআরেক রকমেরটায় আঠা থাকে নাযে সুতায় আঠা লাগানাে থাকে না মাকড়সা তার ওপর দিয়ে হাঁটে বলে সে জালে আটকে যায় 

আমিতাে কিছুই বুঝতে পারছি না তুমি কী বলছ। 

আপনিতাে ধাঁধাটা জানেন না, শুধু উত্তরটা জানেন, এইজন্যে কিছু বুঝতে পারছেন নাবুঝতে না পারলেও ক্ষতি নেইউত্তরটা জেনে রাখুনআচ্ছা শুনুন আমি রাখি

বৃষ্টি বিলাস (পর্ব-১৬)- হুমায়ূন আহমেদ

শামা টেলিফোন নামিয়ে ঘর থেকে বের হলােআর তখনি তার সব বান্ধবীরা সিঁড়ি দিয়ে নামলবান্ধবীদের সঙ্গে মিঃ হুক্কা আছেনশাহানা ম্যাডামও আছেনসবাই তাকিয়ে আছে তার দিকেমিঃ হুক্কা কঠিন গলায় বলল, এক্সকিউজ মি, আপনার বান্ধবীরা বলছে, আপনি আমার চশমা আপনার হ্যান্ড ব্যাগে লুকিয়ে রেখেছেনকাজটা ঠিক করেন নিজোক ভালBut not at the expense of some one

শামা বলল, আমি আপনার চশমা লুকিয়ে রাখি নি। 

তৃণা বলল, তাের হ্যান্ডব্যাগ খুলে দেখিয়ে দে না হ্যান্ডব্যাগে কিছু নেইএত কথার দরকার কী

তৃর্ণ মুখ চেপে হাসছেশামার বুক ধ্বক করে উঠলসে এখন পুরােপুরি নিশ্চিত তার হ্যান্ডব্যাগে দ্রলােকের চশমা আছেতৃণা এক ফাঁকে লুকিয়ে রেখেছে। 

শামা হ্যান্ডব্যাগ খুলে চশমা বের করলতার চোখে পানি এসে যাচ্ছিলসে অনেক কষ্টে চোখের পানি আটকে বলল, I am sorry

ভদ্রলােক চশমা নিতে নিতে বললেনকিছু কিছু অপরাধ আছে শুধু সরিতে কাটা যায় নাযাই হােক, আমি আপনার সরি গ্রহণ করছিআপনাকে একটা ছােট্ট উপদেশ দেবার ইচ্ছা ছিলদিচ্ছি না, কারণ আমার মনে হয় না আপনার 

সঙ্গে আমার আবারাে দেখা হবে। 

বৃষ্টি বিলাস (পর্ব-১৬)- হুমায়ূন আহমেদ

রাত টাএতক্ষণে মন্টু দুটা চ্যাপ্টার পড়ে ফেলতে পারতএখনাে সে বই নিয়ে বসতেই পারে নিএকবার বসেছিল, বই খােলার আগেই টপ করে দেয়াল থেকে একটা টিকটিকি বইয়ের ওপর পড়েছেটিকটিকি বইয়ের ওপর পড়া খুব অলক্ষণসে বই বন্ধ করে উঠে পড়েছেঅলক্ষণের সময় পার করে সে আবারপড়তে বসবে

তাছাড়া মনও বসছে নাবাবার জন্য খুব অস্থির লাগছেবড় আপা অবশ্যি চলে এসেছেঅস্থির ভাবটা এখন অনেকখানি কমেছেআপা মেয়ে মানুষসে কীইবা করবে! তারপরেও মন্টুর মনে হয়, আপা ঘরে থাকা মানেই অনেক কিছুমন্টু একটু পর পরই দরজা ধরে দাঁড়াচ্ছে বাবাকে দেখেই চলে যাচ্ছেতার ওপর দিয়ে সন্ধ্যার পর থেকে একের পর এক ঝামেলা যাচ্ছেতাকেই ডাক্তার ডেকে আনতে হয়েছেচাইনিজ রেস্টুরেন্ট থেকে স্যুপ আনতে হয়েছেতাকেই অষুধ আনতে হয়েছে। 

বৃষ্টি বিলাস (পর্ব-১৬)- হুমায়ূন আহমেদ

আবদুর রহমান সাহেব খুব বিব্রত বােধ করছেনতার লজ্জাও লাগছেসবাইকে দুশ্চিন্তায় ফেলে দেয়ার লজ্জাতিনি পরিবারের প্রধানতার কর্তব্য সবাইকে দুশ্চিন্তামুক্ত রাখাবড় মেয়েটা শখ করে বান্ধবীর বিয়েতে গিয়েছিলতাকে চলে আসতে হয়েছেমেয়েটার মনটা নিশ্চয়ই খুব খারাপ। 

শামা বলল, বাবা স্যুপটা খাওঠাণ্ডা হয়ে যাবে। 

স্যুপ থেকে মুরগি মুরগি গন্ধ আসছেভাতের মাড়ের মতাে একটা জিনিসতার ওপর লতাপাতা ভাসছেদেখেই অভক্তি লাগছেতারপরও মেয়ের মুখের দিকে তাকিয়ে তিনি এক চুমুক স্যুপ মুখে দিলেন। 

শামা বলল, স্যুপটা খেতে ভাল লাগছে না ? তিনি বললেন, খারাপ নাতাহলে খাওচামচ হাতে নিয়ে বসে আছ কেন

তিনি পর পর কয়েক চামচ সুপ মুখে দিলেনশামা বলল, শরীরটা কি এখন আগের চেয়ে ভাল লাগছে

একটু ভাল না অনেকখানি ভাল ?

অনেকখানি ভালস্যুপ খেয়ে শুয়ে পড়। 

আবদুর রহমান সাহেব আরাে এক চামচ সুপ মুখে দিলেনভক করে মুরগির গন্ধ নাকে লাগলশরীর কেমন যেন মােচড় দিচ্ছেবমি হয়ে যেতে পারেতিনি বমি আটকাবার চেষ্টা করলেনতার শরীরের কলকজা ভাল নাএকবার বমি শুরু হলে বাড়িতে আবারাে হৈচৈ শুরু হবেমন্টুর পড়া হবে নাপরীক্ষার আগের রাতের রিভিশনটা এক মাসের পড়ার সমানকাল তার পরীক্ষামনেই ছিল নাস্যুপ খাওয়াটা বন্ধ করতে হবেমেয়ে এমন আগ্রহ নিয়ে খেতে বলছে তিনি নাও করতে পারছেন নামন্টু দরজা ধরে আবারাে এসে দাড়িয়েছেতিনি চোখের ইশারায় ছেলেকে কাছে ডাকলেনমন্টু এগিয়ে এলাে। 

রিভিশন শেষ হয়েছে ? 

না

বৃষ্টি বিলাস (পর্ব-১৬)- হুমায়ূন আহমেদ

আমার শরীর ভাল আছেআমাকে নিয়ে মােটেও চিন্তা করবি নাহাত মুখ ধুয়ে বই খাতা নিয়ে বসে যারাত দুটা পর্যন্ত পড়বিদুটার পর ঠাণ্ডা পানিতে হাত মুখ ধুয়ে শুয়ে পড়বিপরীক্ষার আগের রাতে রিভিশন যেমন দরকার, ঘুমও ঠিক তেমনই দরকার দুটার ইম্পর্টেন্সই সমান সমান। ফিফটি ফিফটিবুঝতে পারলি

মন্টু মাথা কাত করল। শামা বলল, তােমার উপদেশ দেবার কোনাে দরকার নেই বাবা, তুমি স্যুপটা শেষ করঠাণ্ডা হলে আর খেতে ভাল লাগবে না। 

আবদুর রহমান সাহেব নিচু গলায় বললেন, আমি আর খাব নাবমি আসছেবাতি নিভিয়ে দিয়ে তুই চলে যাআমি শুয়ে থাকব। 

মাথায় হাত বুলিয়ে দেই? দরকার নেইতােমার কি ঘুম পাচ্ছে ? হুঁ। 

ঘুম পেলে মাথায় হাত না বুলালেই ভাল ঘুমের সময় মাথায় হাত বুলালে ঘুম কেটে যায়। 

শামা বাবার ঘরের বাতি নিভিয়ে রান্নাঘরের দিকে গেল। 

সুলতানা রান্নাঘরে রুটি বানাচ্ছেনশামা মাপাশে বসতে বসতে বলল, রুটি বানাচ্ছ কেন ?

Leave a comment

Your email address will not be published.