বৃষ্টি বিলাস (পর্ব-১৭)- হুমায়ূন আহমেদ

তাের বাবাকে দেববাবা শুয়ে পড়েছে, কিছু খাবে না। 

আজ সারাদিন কিছু খায় নিঅফিসে শুধু একটা কলিজার সিঙ্গাড়া খেয়েছিলটিফিন বক্স খুলেও দেখে নি।

বৃষ্টি বিলাসএই বয়সে বাবার কলিজার সিঙ্গাড়া খাওয়া একেবারেই ঠিক নাপচা বাসি কলিজা দিয়ে সিঙ্গাড়া বানায়।..

সুলতানা মেয়ের দিকে তাকিয়ে বললেন, তুই কি বিয়ে বাড়ি থেকে খেয়ে এসেছিস ? 

শামা নাসূচক মাথা নাড়লতাহলে হাত মুখ ধুয়ে আয়, রুটি খানাকি ভাত খাবি ? রুটি খাবগরম গরম রুটি দেখে লােভ লাগছেসুলতানা বললেন, তার বান্ধবীর বিয়ের উৎসব কেমন জমেছে

খুব জমেছেনানান ধরনের মজা হচ্ছেকী হচ্ছে বল, শুনিবলতে ইচ্ছা করছে নাবড় মানুষদের বড় মজাওরা কি খুবই বড়লােক

বড়লােক মানেহুলস্থুল বড়লােক! মীরাদের বাড়ির প্রতিটা ঘরে এসি আছেআমার ধারণা কাজের মেয়েদের ঘরেও আছে। 

বৃষ্টি বিলাস (পর্ব-১৭)- হুমায়ূন আহমেদ

বলিস কী

কথার কথা বলছিকাজের মেয়ের ঘরেতাে আর এসি থাকে নাবড়লােকেরা যা করে নিজের জন্যে করেঅন্যের জন্যে করে না। 

মীরার বাবা কী করেন ? ইন্ডাস্ট্রি আছেমাছের ব্যবসা আছেআরাে কী কী যেন আছেশামা একটা রুটি নিয়ে খেতে শুরু করলাে । 

সুলতানা বললেন, শুধু শুধু রুটি খাচ্ছিস কেন? তরকারি দিয়ে খা ডিম একটা ভেজে দেব, ডিম দিয়ে খাবি

উঁহুসবুজ শাড়িতে তােকে যে খুব সুন্দর দেখাচ্ছে এই কথা কেউ বলে নি

বলে নিসুলতানা বললেন, কুমারী মেয়েদের সেজেগুজে বিয়ে বাড়িতে যাওয়াটা ভালঅনেকের চোখে পড়েসম্বন্ধ আসে। 

সুলতানা মাথা নিচু করে লজ্জিত ভঙ্গিতে হাসতে হাসতে বললেন, তাের বয়সে আমি যতবার কোনাে বিয়ে বাড়িতে গিয়েছি ততবার বিয়ের সম্বন্ধ এসেছে! এর মধ্যে একটা এসেছিল প্লেনের পাইলট । 

পাইলটের সঙ্গে বিয়ে হলাে না কেন? বিয়ে হলেতাে প্লেনে করে তুমি দেশ বিদেশ ঘুরতে পারতে। 

বিয়ে কপালের ব্যাপার কপালের লেখা ছিল তাের বাবার সাথে বিয়ে হবেতাই হয়েছে। 

আমার কপালে লেখা খাতাউরের সঙ্গে বিয়ে হবে, কাজেই যত সেজেগুজেই বিয়ে বাড়িতে যাই না কেন আমার কপালে খাতাউর তাই না মা ? খাতাউর সাহেব যে দুপুরে বাসায় খেতে এসেছিল এটা কি বাবাকে বলেছ

না। 

বল নি কেন? আছে একটা সমস্যাকী সমস্যা ? পরে শুনবিপরে শুনব কেন ? এখন বল। 

সুলতানা ছােট্ট নিঃশ্বাস ফেলে বললেন, তাের বাবার ইচ্ছা না ছেলেটার সঙ্গে তাের বিয়ে হােকতার যে শরীরটা খারাপ করেছে এইসব ভেবেই করেছে

বৃষ্টি বিলাস (পর্ব-১৭)- হুমায়ূন আহমেদ

 তার মানে

তাের বাবা আজ দুপুরে ছেলেটার সম্পর্কে খুব একটা খারাপ খবর পেয়েছেতখনি তার শরীরটা খারাপ করেছেএত আশা করে ছিল! হঠাৎ একটা ধাক্কার মতাে খেয়েছেঅফিসেই বমি টমি করেছে। 

খারাপ খবরটা কী

আমাকে কিছু বলে নিতাের বাবাকেতাে তুই চিনিস একবার যদি সে ঠিক করে কিছু বলবে না, পেটে বােমা মারলেও বলবে না। 

খারাপ খবর যেটা বাবা শুনেছেন সেটাতাে ভুলও হতে পারেবিয়ের সময় প্রায়ই মিথ্যা খবর রটানাে হয়। 

তাের বাবা বলেছে খবর মিথ্যা না। 

শামা তাকিয়ে আছেসুলতানা মেয়ের দৃষ্টির সামনে বসে থাকতে পারলেন তিনি উঠে দাঁড়ালেনএশার ঘরে একবার যেতে হবেমেয়েটা সন্ধ্যা থেকে দরজা বন্ধ করে শুয়ে আছেতার মাইগ্রেনের ব্যথা উঠেছেস্বামীকে দেখতে গিয়ে মেয়ের দিকে তাকানাে হয় নি। 

প্রথমে তিনি স্বামীর ঘরে উঁকি দিলেনমানুষটা ঘুমুচ্ছেমনে হচ্ছে আরাম করেই ঘুমুচ্ছে আরামের ঘুমের সময় মানুষ হাত পা গুটিয়ে ছােট্ট হয়ে যায়বেআরামের ঘুমের সময় মানুষ সরল রেখার মতো সােজা হয়ে থাকে। 

সুলতানা ছেলের ঘরে গেলেনবেচারার পড়ার আজ অনেক ক্ষতি হয়েগেছেতিনি ঠিক করলেন মন্টু যতক্ষণ পড়বে তিনি পাশে বসে থাকবেনতার এই ছেলেটা বােকা টাইপ হয়েছেছােটবেলায় এত বােকা ছিল না, যতই দিন যাচ্ছে বুদ্ধি মনে হয় ততই কমছেপড়তে পড়তে সে ঘুমিয়ে পড়েধাক্কা দিয়ে জাগিয়ে দিলে সঙ্গে সঙ্গে পড়তে শুরু করেএই ছেলের পড়াশােনা হবে বলে মনে হয় নাপরীক্ষা দিয়ে ফেল করবেআবার দেবে, কোনাে বছর দেবে।

বৃষ্টি বিলাস (পর্ব-১৭)- হুমায়ূন আহমেদ

কোনাে বছর দেবে নাএই করতে করতে বয়স হয়ে চেহারায় লােক লােক ভাব আসবে তখন কোনাে দোকান টোকান দিয়ে বসিয়ে দিতে হবেমন্টুর মতাে ছেলেরা খুব ভাল দোকানদার হয়। 

টেবিলে খােলা বইমন্টু বইয়ে মাথা রেখে আরাম করে ঘুমুচ্ছেঘাড়ের ওপর মশা, রক্ত খেয়ে ফুলে আছেমন্টুর কোনাে বিকার নেইসুলতানা ছােট্ট করে নিঃশ্বাস ফেললেনছেলেকে ঘুম থেকে তুললেই সে পড়তে শুরু করবেঘুমিয়ে পড়ার আগ মুহূর্তে যেখানে পড়া শেষ করেছিল সেখান থেকে শুরু করবে, কিছুক্ষণ ঘুমাকতিনি এশার ঘরের দিকে রওনা হলেন। খুব সম্ভব এশাও ঘুমুচ্ছেমাইগ্রেনের ব্যথা প্রবল হলে এশা কয়েকটা ঘুমের অষুধ খেয়ে ফেলেব্যথা কমে যায় কিন্তু ঘুম থেকে যায়। 

এশার ঘরের দরজা ভেজানাে সুলতানা দরজার পাশে দাঁড়াতেই এশা বলল, ভেতরে এসাে মা। 

সুলতানা ঘরে ঢুকলেনএই গরমে এশা চাদর গায়ে শুয়ে আছেতার চোখ লালসুলতানা বললেন, মাথাব্যথার অবস্থা কী

এশা বলল, অবস্থা ভালকমেছে

তাহলে ভাল বলছিস কেন

আমার মাথাব্যথা প্রসঙ্গটা এখন একটু বাদ থাকুকমা আসল ঘটনা আমাকে বলআপার বিয়ে বাতিল হয়ে গেছে

ফু না, পরিষ্কার করে বলবাবা কি বিয়ে বাতিল করে দিয়েছেন ? 

ছেলেকে বলেছেন

সরাসরি ছেলেকে বলে নিতার চাচাকে আর বড় বােনকে খবর দেয়া হয়েছে। 

Leave a comment

Your email address will not be published.