• Sunday , 27 September 2020

ভেষজ গুন সম্পূর্ণ থানকুনি পাতার উপকারিতা

ভেষজ গুন সম্পূর্ণ থানকুনি পাতার উপকারিতা অনেক। আসুন এর গুনাগুনগুলো জেনে নেই?

ভেষজগুন সম্পূর্ণ উদ্ভিদ হলো থানকুনি পাতা।অতি প্রাচীন কাল থেকে এই ওষুধি গুন সম্পূর্ণ পাতার ব্যবহার হয়ে আসছে।এই থানকুনি বিভিন্ন অঞ্চলে বিভিন্ন নামে পরিচিত।যেমন – আদামনি, ঢোলামানি,আদাগুনগুনি,থুলকুড়, মানামানি ইত্যাদি নামে পরিচিত।থানকুনি পাতার উপকারিতা

থানকুনি পাতার উপর গবেষনা করে দেখা গেছে যে, এই পাতা মাথার চুল থেকে পায়ের নখ পর্যন্ত মানে সমস্ত শরীরের জন্যই খুবই উপকার। এটি শরীরের কর্মদক্ষতা বাড়ানো ছাড়াও নানা উপকার করে থাকে।আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে থানকুনি পাতার ওষুধিগুনের কথা বলা হয়েছে এবং এর যথার্থ ব্যবহারের কথাও উল্লেখ করা হয়েছ। আধুনিক কালেও এই পাতা খাওয়ার উপর জোর দেয়া হচ্ছে। কারন এর উপকারিতা প্রচুর আর কোন পাশ্বর্প্রতিক্রিয়াও নাই।

 

★থানকুনি পাতা আমাদের কি কি উপকারে আসে তা নিম্নে দেয়া হলো —-

 

রক্ত জমাট বাঁধা দূর করে :

থানকুনি পাতায় যে উপকরনগুলো রয়েছে তাতে রক্ত জমাট বাঁধার রোগ দূর করে। এর রস রক্তের প্রদাহ ঠিক রাখে। ফলে মস্তিষ্কে, হার্টে, ফুসফুসে রক্ত চলাচল ঠিক থাকে ও য়ভালো থাকে।

 

ওজন কমাতে সহায়তা করে :

প্রতিদিন নিয়ম করে থানকুনি পাতার রস খেলে এবং হাটাহাটি ও হাল্কা ব্যায়াম করলে ওজন কমো এবং হজম শক্তিও বাড়ে এবল মেদ জমার আশঙ্কা থাকে না।

 

রক্তের প্রদাহ নিয়ন্ত্রণ করে :

থানকুনি পাতায় রয়েছে এন্টি – ইনফ্লেমেটরি উপাদান। যা শরীরে রক্তের প্রদাহ বাড়ায় এবং বিভিন্ন রকমের ইনফেকশান, ব্যথা যন্ত্রণাও দূর হয়।  

 

স্মৃতি শক্তি বাড়ে : 

থানকুনি পাতায় বিদ্যমান পেন্টাসাইক্লিক ট্রাইটারপেইনস ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান স্মৃতি শক্তি বৃদ্ধি করে। তাই বাচ্চাদের প্রতিদিন ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী থানকুনি পাতার রস খাওয়ানো উচিত।     

 

ক্ষত স্থান শুকাতে সহায়তা করে :

থানকুনি পাতায় যে উপাদানগুলো রয়েছে তা ক্ষত স্থানে এই পাতার রস লাগালে তারাতাড়ি এই ক্ষত শুকিয়ে যায় এবং এই ক্ষত স্থানটি সংক্রামিত হয় না।

 

মানসিক অবসাদ দূর করে :

থানকুনি পাতার রস খেলে সেরোটোনিন হরমোনের ক্ষরণ বাড়ে। এতে মানসিক অবসাদ তো কমেই, মানুষ কিছু নিয়ে স্ট্রেসে থাকলে সেটাপ কমায়। 

 

ত্বকের সৌন্দর্য বাড়ায় :

থানকুনি পাতায় যে উপাদান গুলো রয়েছে যেমন বিটা – ক্যারোটিন, এমাইনো এসিড ইত্যাদি আমাূের ত্বকের জন্য খুবই উপকারী এবং ভিতর থেকে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়, মুখের বলিরেখা কমায় এবং কম বয়সেই ত্বকোর বুড়িয়ে যাওয়া কমায় থানকুনি পাতা।

 

গ্যাসটিকের ও পেটের সমস্যা দূর করে :

গ্যাসটিকের ও পেটের নানা সমস্যায় নিয়মিত থানকুনি পাতার রস খেলে ভালো উপকার পাওয়া যায়।প্রতিদিন দুধের সাথে সামান্য থানকুনি পাতার রস মিশিয়ে খেলে গ্যাসটিকের সমস্যা দূর হয় কয়েক সপ্তাহে।থানকুনি পাতার রস পেটের নানা সমস্যাও দূর করে এবং কৃমি প্রকোপও কমায়। 

    

★অনেক গুনাগুন থাকার পরও থানকুনি পাতার কিছু পাশ্বর্পতিক্রিয়া রয়েছে।নিম্নে এর অপকারিতাগুলো দেয়া হলো –

★বেশি খেলে রক্তচাপ কমে যাবার আশঙ্কা থাকে।

★মারাত্মক পেটে ব্যথার সমস্যা থাকতে পারে।

★লিভারের রোগীদের মোটেও থানকুনি পাতা খাওয়া উচিত নায়।

★অপারেশনের রোগীদেরও থানকুনি পাতা খাওয়া উচিত নয়।

   

 

শরীরের যত্নে থানকুনি পাতার ব্যবহারের কোন বিকল্প হয় না। এর উপকারিতারই বেশি।

 

BY

ত্রোপা চক্রবর্তী

Related Posts

Leave A Comment