ভয় (পর্ব-২)-হুমায়ূন আহমেদ

লােকটি খানিকটা অপ্রস্তুত হয়ে বলল, টাকার কথায় আপনি কি রাগ করেছেন? রাগ করিনিমজা পেয়েছিচা খাবেন?খেতে পারিদুধ ছাড়া

ভয়

মিসির আলি স্বাভাবিক ভঙ্গিতে বললেন, এক কাজ করুন রান্নাঘরে চলে যানকেতলি বসিয়ে দিনদুকাপ বানানআমাকেও এক কাপ দেবেন। 

ভদ্রলোেক হতভম্ব হয়ে তাকিয়ে রইলেনমিসির আলি হাসিমুখে বললেন, আমাকে ঘন্টা হিসেবে পে করবেন বলে যেভাবে হকচকিয়ে দিয়েছিলেন, আমিও ঠিক একই ভাবে আপনাকে হকচকিয়ে দিলামবসুন চা বানাতে হবেনাসাতটার সময় রাস্তার ওপাশের রেষ্টুরেন্ট থেকে আমার জন্যে চা নাশতা আসেতখন আপনার জন্যেও চা আনিয়ে দেব। 

থ্যাংক স্যারআপনি কথা বলার সময় বার বার বাঁ দিকে ঘুরছেন, আমার মনে হচ্ছে আপনার বা চোখটা নষ্টএই জন্যেই কি কালাে চশমা পরে আছেন?” 

ভদ্রলােক সহজ গলায় বললেন, জিআমার বা চোখটা পাথরের। 

ভয় (পর্ব-২)-হুমায়ূন আহমেদ

ভদ্রলােক সােফার এক কোণে বসলেনমিসির আলি লক্ষ্য করলেন লােকটি শিরদাড়া সােজা করে বসে আছেচাকরির ইন্টারভু দিতে এলে ক্যানডিডেটরা যে ভঙ্গিতে চেয়ারে বসে অবিকল সেই ভঙ্গিমিসির আলি বললেন, আজকের খবরের কাগজ এখনাে আসেনিগতদিনের কাগজ দিতে পারিযদি আপনি চোখ বুলাতে চান| আমি খবরের কাগজ পড়ি নাএকা একা বসে থেকে আমার অভ্যাস আছেআমার জন্যে আপনাকে ব্যস্ত হতে হবে নাশুরুতে টাকা দেয়ার কথা বলে যদি আপনাকে আহত করে থাকি তার জন্যে ক্ষমা প্রার্থনা করছি। 

মিসির আলি টুব্রাশ হাতে বাথরুমে ঢুকে গেলেনলােকটিকে তার বেশ ইস্টারেস্টিং বলে মনে হচ্ছেতবে কোন গুরুতর সমস্যা নিয়ে এসেছে বলে মনে হয় আজকাল অকারণেই কিছু লােকজন এসে তাকে বিরক্ত করা শুরু করেছে। 

মাসখানিক আগে একজন এসেছিল ভূত বিশারদসে নাকি গবেষণাধর্মী একটি বইলিখছে যার নাম বাংলারভূতদেশে যত ধরণের ভূত পেত্নী আছে সবার নাম, আচারব্যবহার বই লেখামেছাে ভূত, গেছাে ভূত, জলা ভূত, শাকচুন্নি, কন্ধকাটা, কুনী ভূত, কুত্তী ভূত, আঁধি ভূত ..সর্বমােট একশরকমের ভূত। 

ভয় (পর্ব-২)-হুমায়ূন আহমেদ

মিসির আলি বিরক্ত হয়ে বলেছিলেন, ভাই আমার কাছে কেন? আমি সারাজীবন ভূত নেই এইটা প্রমাণ করতে চেষ্টা করেছি...। 

সেই লােক মহা উৎসাহী হয়ে বলল, কোন্ কোন্ ভূত নেই বলে প্রমাণ করেছেনএইটা কাইণ্ডলি বলুনআমার কাছে ক্যাসেট প্লেয়ার আছেআমি টেপ করে নেব। 

সানগ্লাস পরা বেঁটে ভদ্রলােক সেই পদের কেউ কিনা কে বলবে? 

তােয়ালে দিয়ে মুখ মুছতে মুছতে মিসির আলি বললেন, ভাই বলুন কি ব্যাপার। 

প্রথমেই আমার নাম বলিএখনাে আমি আপনাকে আমার নাম বলিনিআমার নাম রাশেদুল করিমআমেরিকার টেক্সাস এম এণ্ড এন বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের আমি একজন অধ্যাপকবর্তমানে এক বছরের স্যাবােটিক্যাল লীভে দেশে এসেছিআপনার খোঁজ কি ভাবে এবং কার কাছে পেয়েছি তাকি বলব?” 

তার দরকার নেইকি জন্যে আমার খোজ করছেন সেটা বলুনআমি কি ধূমপান করতে পারি? সিগারেট খেতে খেতে কথা বললে আমার জন্যে সুবিধা হবেসিগারেটের ধােয়া এক ধরণের আড়াল সৃষ্টি করে। 

আপনি সিগারেট খেতে পারেন, কোন অসুবিধা নেইছাই কোথায় ফেলব? আমি কোন এসট্র দেখতে পাচ্ছি নামেঝেতে ফেলুনআমার গােটা বাড়িটাই একটা এসট্র। 

রাশেদুল করিম সিগারেট ধরিয়েই কথা বলা শুরু করলেনতার গলার স্বর ভারী এবং স্পষ্টকথাবার্তা খুব গােছানােকথা শুনে মনে হয় তিনি কি বলবেন তা আগে ভাগেই জানেনকোন বাক্যটির পর কোন্ বাক্য বলবেন তাও ঠিক করাযেন ক্লাসের বক্তৃতাআগে থেকে ঠিকঠাক করাপ্রবাসী বাঙ্গালীরা এক নাগাড়ে বাংলায় কথা বলতে পারেন নাইনি তা পারছেন। 

ভয় (পর্ব-২)-হুমায়ূন আহমেদ

আমার বয়স এই নভেম্বরে পঞ্চাশ হবেসম্ভবত আমাকে দেখে তা বুঝতে পারছেন নাআমার মাথার চুল সব শাদাকলপ ব্যবহার করছি গত চার বছর থেকেআমার স্বাস্থ্য ভালনিয়মিত ব্যায়াম করিমুখের চামড়ায় এখনাে ভাজ পড়ে নিবয়সজনিত অসুখ বিসুখ কোনটাই আমার নেইআমার ধারণা শারিরীক এবং মানসিক দিক দিয়ে আমার কর্মক্ষমতা এখনাে একজন পয়ত্রিশ বছরের যুবকের মত। 

এই কথাটা বলার উদ্দেশ্য হচ্ছে আমি বিয়ে করতে যাচ্ছিআজ আমার গায়ে হলুদমেয়ে পক্ষীয়রা সকাল নটায় আসবেআমি ঠিক আটটায় এখান থেকে যাবআটটা পর্যন্ত সময় কি আমাকে দেবেন?” 

দেবভাল কথা এটা নিশ্চয়ই আপনার প্রথম বিবাহ নাএর আগেও আপনি বিয়ে করেছেন?” 

জিএর আগে একবার বিয়ে করেছিএটি আমার দ্বিতীয় বিবাহআমি আগেও বিয়ে করেছি তা কি করে বললেন? | আজ আপনার গায়ে হলুদ তা খুব সহজভাবে বললেন দেখে অনুমান করলামবিয়ের তীব্র উত্তেজনা আপনার মধ্যে দেখতে পাইনি| সব মানুষতাে এক রকম নয়একেকজন একেক রকমউত্তেজনার ব্যাপারটি আমার মধ্যে একেবারেই নেইপ্রথমবার যখন বিয়ে করি তখনাে আমার মধ্যে বিন্দুমাত্র উত্তেজনা ছিল নাসেদিনও আমি যথারীতি ক্লাসে গিয়েছিগ্রুপ থিওরীর উপর এক ঘন্টার লেকচার দিয়েছি। 

ঠিক আছে আপনি বলে যান। 

রাশেদুল করিম শান্ত গলায় বললেন, আপনার ভেতর একটা প্রবণতা লক্ষ্য করছি আমাকে আর দশটা মানুষের দলে ফেলে বিচার করার চেষ্টা করছেনদয়া করে তা করবেন নাআমি আর দশজনের মত নই। 

আপনি শুরু করুনঅংকশাস্ত্রে এম. ডিগ্রী নিয়ে আমি আমেরিকা যাই পি এইচ ডি করতেএম. এতে আমার রেজাল্ট ভাল ছিল নাটেনে টুনে সেকেণ্ড ক্লাস

Leave a comment

Your email address will not be published.