মশলা জিরার উপকারিতা আসুন জেনে নেই 

জিরা! বাঙ্গালীদের রান্নার এক বিশেষ উপাদান। এটি রান্নার স্বদ ও গন্ধ বাড়িয়ে দেয়। তবে শুধুমাত্র রান্নার স্বাদ বৃদ্ধি  ও সুঘ্রাণের জন্যই নয় জিরা আমাদের শরীরের জন্য খুবই উপকারী। নানা রকম প্রাকৃতিক গুণাবলিতে ভরপুর জিরা।

জিরার উপকারিতা
জিরা

জিরায় রয়েছে প্রচুর পরিমান ভিটামিন, আয়রন, কার্বোহাইড্রেট, অ্যান্টি – কার্সিনোজেনিক প্রপাটিজ, মিনারেল, নানা রকম ফ্যাটি এসিড ইত্যাদি যা আমাদের শরীরকে রাখে  সুস্থ ও সতেজ। 

★ জিরার আমাদের শরীরের জন্য উপকারী গুন গুলো হলো –

১/ জিরায় আয়রনের মাত্রা প্রচুর। আয়রনের সাথে সাথে আছে ভিটামিন এ ও সি। তাই এটি রেখে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

২/ জিরাতে যে আয়রন রয়েছে তা রক্তে অক্সিজেন বহনকারি হিমোগ্লোবিনের পরিমান বাড়ায়। ফলে রক্তশূন্যতা হবার সম্ভবানা দূর হয়।

৩/  ১ চামচ জিরা সারারাত ভিজিয়ে রেখে সেই পানি সকালে খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়। 

৪/ পেটের সমস্যা দূর করতে জিরা পানি খুবই উপকার। যাদের গ্যাসটিকের সমস্যা তারা অল্প অল্প সারাদিন জিরা পানি পান করলে এ সমস্যা,দূর করতে পারবে। 

৫/ গরমের দিনে জিরা ভিজানো পানি পান করলে শরীরের আদ্রতা বজায় থাকে। এটি প্রাকৃতিকগুন সম্পূর্ণ হওয়া এটি আমাদের শরীরের তাপমাত্রা কমায়।

৬/ জিরা স্মৃতিশক্তি উন্নত করতে কার্যকর।তাই ছোট থেকেই জিরা বা জিরার পানি খাওয়ানো গেলে উল্লেখযোগ্যভাবে বুদ্ধিমত্তা ও স্মৃতিশক্তি বাড়ে। 

উপকারী গুন গুলো হলো –

৭/  প্রতিদিন নিয়ম করে জিরা পানি পান করলে  দেহ পর্যাপ্ত পরিমানে ভিটামিন এ,সি ও ই পায় যেগুলো এন্টিঅক্সিডেন্ট ও এন্টিএজিং গুনাগুনের জন্য পরিচিত।এটা পান করার ফলে ত্বক পরিপূর্ণ হয় এবং অকাল বুড়ীয়ে যাওয়া প্রতিরোধ করে।

৮/ জিরা পানি আমাদের পরিপাক ক্রিয়া  সঠিকভাবে পরিচালনায় সহায়তা করে। এতে করে হজমশক্তি বাড়ে এবং ত্বক অভ্যান্তরীন ভাবেই স্বাস্থ্যবান হয়।  

৯/ স্বাস্থ্যবান ত্বক হলে ব্রণের সমস্যাও দূর হয়।তাই জিরা ত্বকের ব্রণের সমস্যাও দূর করে।

১০/ তুকের জ্বালা পোড়া ভাব দূর করতে জিরা পানি খুবই কার্যকর। 

১১/ যাদের ঘুমের সমস্যা রয়েছে এবং ভালো ঘুম হয় না তাদের জন্য জিরার পানি খুবই উপকার। 

১২/ সকালে ঘুম থেকে উঠার পর গর্ভবতী মায়েদের বমি বমি ভাব হয়ে থাকে।জিরা পানি পান করলে এই বমি ভাব দূর হয়। গর্ভবতী ছাড়াও বমি ভাব হলে জিরা পানি পান করলে উপকৃত হবেন। 

১৩/  চুল রুক্ষ হয়ে গেলে চুলপর সৌন্দর্য ফিরে পেতে জিরা সাহাজ্য করে। এক গ্লাস পানিতে এক চামচ জিরা পাউডার ও একটি ডিমের কুসুম মিশিয়ে  চুলে লাগিয়ে নিতে হবে।তারপর শুকিয়ে গেলে চুল ধুয়ে নিতে হবে।সপ্তাহে এক দিন লাগালে হবে। এই রকম কয়েক দিন লাগালে এর সুফল নজরে পরবে

১৪/ যেহেতু জিরা খেলে পরিপাকতন্ত্রের কাজ ভালো হয় এবং হজমশক্তিও বাড়ে।ফলে এতে ওজনও কমে। 

১৫/  জিরাপানি যকৃতের ও পাকস্থলীর জন্য খুবই উপকারী। জিরার মাঝে থাকা এন্টিঅক্সিডেন্ট দেহের এবং ভেতরের অঙ্গের বিষাক্ততা দূর করে।

 

পরিশেষে জিরা একটি পরিচিত ও উপকারী মশলা। এর কোন পার্শ্বপতিক্রিয়া নেই বললেই চলে।

 

BY
ত্রোপা চক্রবর্তী

Leave a comment

Your email address will not be published.