• Monday , 1 March 2021

সদ্যেজাত ৫ শিশুর কেউই বেঁচে নেই

শনিবার ১৫ আগষ্ট রাতে চাঁদপুরের কচুয়ায়, কচুয়া টাওয়ার নামে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ঘটেছে এক বিষ্ময়কর ঘটনা।শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে প্রসবব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন মারুফা বেগম (২৫) এক প্রসূতি ।

সদ্যেজাত শিশুর

৫ শিশুর কেউই বেঁচে নেই

প্রসূতির বর্ণনা শুনে হাসপাতালের চিকিৎসক তাকে আল্ট্রাসনোগ্রাম করেন। প্রসব ব্যথা তীব্র হতে থাকলে মারুফা বেগমকে দ্রুত অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয় । সেখানে স্বাভাবিক ভাবে পরস্পর পাঁচটি সন্তান প্রসব করেন মারুফা বেগম । চারটি ছেলে ও একটি কন্যা সন্তান জন্ম দেন তিনি । 

তবে অপরিণত সময়ে জন্ম হওয়ায় প্রসবের পরস্পরই একে একে মারা যায় শিশুগুলো । প্রসবের পরপর মারা যায় তিন শিশু । বাকি দুই শিশু জীবিত নিয়েই রাতে হাসপাতাল ত্যাগ করেন ওই প্রসূতি মা । রোববার ( ১৬ আগষ্ট ) সকালে একে একে তারাও মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে । 

৫ শিশুর কেউই বেঁচে নেই

কচুয়া টাওয়ার হাসপাতালের চিকিৎসক সিনথিয়া সাহা জানান, মূলত অপরিণত হয়ে জন্ম হওয়ায় পাঁচ শিশুই মারা যায় । 

কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার বরকড়ই গ্রামের কৃষক মোঃ ইউনুসের স্ত্রী মারুফা বেগম । তবে প্রসব ব্যাথার আগে মারুফা তার বাবার বাড়িতে অবস্থান করছিলেন ।

 

Read More

একসাথে ৫ সন্তানের জন্ম দিলেন মা

Related Posts

Leave A Comment