সাজঘর (পর্ব-১৩): হুমায়ূন আহমেদ

লীনা বলল, আপনি ঠিকই বুঝেছেনকর্তাকে ছাড়া যেতে মন চাচ্ছে না

লীনা চুপ করে রইলজামান সাহেব বললেন, লীনা তােমাকে আমি খােলাখুলি কিছু কথা বলিকিছু কিছু কথা সরাসরি হওয়াই ভালােদেখ লীনা, তােমাদের আর্থিক অবস্থার কথা আমি ভালােভাবেই জানিসেটা জেনে তােমার কর্তার জন্যে একটা টিকিট আমার কেনা উচিতকিনতেও আমার কোনাে অসুবিধা নেই। কিন্তু মুশকিল কি জান? তােমাদের আত্মসম্মান বোধ অনেক বেশিতােমরা আহত বােধ করবেসাজঘরভালাে করতে গিয়ে মন্দ করা হবেআমি সত্যি চাই তুমি যাও আমাদের সঙ্গেতােমার শরীর খারাপবেশ খারাপবাইরে একটু ঘুরে টুরে এলে ভালাে লাগবে‘ 

লীনা কিছুই বলল না। 

জামান সাহেব বললেন, আসিফকে নিয়ে গেলে আরেকটা বাস্তব সমস্যা আছে, সেটাও তােমাকে খােলাখুলি বলিতােমার মা, আই মিন আমার শাশুড়ি আসিফকে তেমন পছন্দ করেন নাএগার দিন একসঙ্গে থাকতে হবেএর মধ্যে তিনি অনেকবার আসিফকে নিয়ে অনেক অপ্রিয় প্রসঙ্গ তুলবেনতােমার খুব খারাপ লাগবে

সাজঘর (পর্ব-১২): হুমায়ূন আহমেদ

লীনা বলল, আপনিই বা হঠাৎ দল বেঁধে বাইরে যাবার ব্যাপারে এত উৎসাহী হলেন কেন

খুব ক্লান্ত লাগছেটাকা বানানাের একটা মেশিন হয়ে পড়েছিসারাদিন হাসপাতালে থাকিবাসায় ফিরে বিশ্রামের বদলে রাত দশটা এগারটা পর্যন্ত রুগী দেখিজীবনটা মানুষের রােগশােকের মধ্যে আটকা পড়ে আছেমুক্তি চাচ্ছিকিছু সময়ের জন্যে হলেও মুক্তিমাঝেমাঝে তােমাদেরকে আমার বেশ হিংসাই হয়মনে হয় বেশ সুখেই তাে তােমরা আছ‘ 

আপনি কি অসুখে আছেন

হ্যা অসুখেই আছিউত্তরায় বাড়ি করছিকত রকম প্ল্যানিং; কত পরিকল্পনাফলের গাছ কী কী থাকবে, ফুলের গাছ কী কী থাকবেঅথচ আমি নিজে ডাক্তার, আমি খুব ভালাে করে জানি আমরা যে বেঁচে আছি এইটাই পরম আশ্চর্যের ব্যাপারদীর্ঘ পরিকল্পনা অর্থহীন। 

 ফিলসফার হয়ে যাচ্ছেন দুলাভাইএটা তাে ভালাে লক্ষণ না” 

ফিলসফার হতে পারলে তাে কাজই হতহাইলি মেটেরিয়েলিস্টিক মানুষ হয়ে জন্মেছিভাবেই মরবআমার মতাে সাকসেসফুল ডাক্তারদের এটাই হচ্ছে ডেসটিনি

সাজঘর (পর্ব-১২): হুমায়ূন আহমেদ

অনেক রাতে আসিফের ঘুম ভেঙে গেলঘর অন্ধকার, বাইরে ঝুপঝুপ করেবৃষ্টি পড়ছেখােলা জানালায় বৃষ্টির ছাঁট আসছেহাওয়ায় মশারি উড়ে উড়ে যাচ্ছেআসিফ বিছানায় উঠে বসললীনা পাশে নেইএটা নতুন কিছু না, প্রায় রাতেই ঘুম ভাঙলে লীনাকে পাশে দেখা যায় নাসে একাকী বারান্দার বেতের চেয়ারটায় বসেবাড়ির সামনের ঝাঁকড়া কাঁঠাল গাছের দিকে তাকিয়ে থাকেআজও নিশ্চয়ই তাই 

আছে। 

আসিফ বাতি জ্বালল নানিঃশব্দে বারান্দায় এসে দাঁড়াললীনা তার দিকে তাকিয়ে হাসলযেন সে জানত এই মুহূর্তে আসিফ এসে তার পাশে বসবে। 

কী করছ লীনা? কিছু নাবৃষ্টি দেখছি‘ঘুম আসছে না

সাজঘর (পর্ব-১২): হুমায়ূন আহমেদ

ডাক্তার দেখাচ্ছ না কেন

দেখাববস আমার পাশেবৃষ্টি দেখতে দেখতে খানিকক্ষণ গল্প করিআসিফ বসতে বসতে মৃদু স্বরে বলল, একা একা বসে তুমি কী ভাব বল তাে? সাধারণত কিছু ভাবি না, আজ অবশ্যি ভাবছিলামকাশ্মীর জায়গাটা দেখতে 

কেমন হবেনিশ্চয়ই খুব সুন্দর, তাই না

সুন্দর তাে বটেইসব সুন্দরসুন্দর জায়গাগুলাে ইন্ডিয়াতে পড়ে গেলরাগ লাগে না তােমার? লাগে। 

কাশ্মীর জায়গাটা কেমন হবে ভাবতে ভাবতে কী ঠিক করলাম জান? ঠিক করলাম আমি দুলাভাইয়ের সঙ্গে ঘুরেই আসব

সাজঘর (পর্ব-১২): হুমায়ূন আহমেদ

খুব ভালাে, যাও ঘুরে আস। তােমার কাছে যদি ভালাে লাগে তাহলে পরে আমরা দুজন আবার যাব। হাউস বােট ভাড়া করে থাকব। 

কাশ্মীর দেখার জন্যে আমি যাচ্ছি না কিন্তুআমি যাচ্ছি অন্য কারণেঅন্য কারণটা কি?” 

আমি আজমীর যাবআজমীর শরীফে গিয়ে যা চাওয়া যায় তাই না কি পাওয়া যায়আমি জনােই যাবযেন আমাদের এই বারের বাচ্চাটা বেঁচে থাকে। 

ওর বয়স কত হল লীনা? তিন মাস। তুমি বিশ্বাস করবে না, আমি কিন্তু ওর হার্টবিট বুঝতে পারিসত্যি হা সত্যিতবে সব সময় নাগভীর রাতে যখন একা একা বসে থাকি তখন। 

এই জন্যেই কি তুমি রাত জাগ

আসিফ সিগারেট ধরালতার পাশে বসে থাকা এই মেয়েটি তার কত দিনের চেনা, অথচ গভীর রাতে সে যখন একা একা বসে থাকে তখন কেমন অচেনা হয়ে যায়। 

সাজঘর (পর্ব-১২): হুমায়ূন আহমেদ

লীনা বলল, অনেকদিন তােমাদের রিহার্সেলে যাই না। রিহার্সেল কেমন হচ্ছে? বেশি ভালাে হচ্ছে নাশাে পিছিয়ে দিয়েছে, সব কেমন টিলাঢালা হয়ে গেছে। 

পল মেয়েটা কেমন করছে? ভালাে করছেআমার চেয়েও ভালাে? হ্যা তােমার চেয়েও ভালাে। 

আমাকে যেমন অভিনয়ের আগে একটা বক্তৃতা দিয়েছিলে, ওকেও কি দিয়েছিলে

আচ্ছা ষষ্ঠ দৃশ্যে তুমি যখন পুম্পকে জড়িয়ে ধর, তখন তােমার কেমন লাগে? আসিফ অবাক হয়ে বলল, এই প্রশ্ন করছ কেন

সাজঘর (পর্ব-১২): হুমায়ূন আহমেদ

এমি করছি, কিছু মনে করাে নাবৃষ্টির বেগ আরাে বাড়ছে। ঝড়ের মতাে হচ্ছে। 

জামগাছের পাতায় শোঁশোঁ শব্দইলেকট্রিসিটি চলে গিয়েছেসমস্ত শহর অন্ধকারে ডুবে গেছেআসিফ বলল, চল শুয়ে পড়িলীনা বিনাবাক্যব্যয়ে উঠে এলদুজনের কেউই বাকি রাত ঘুমুতে পারল নাআসিফ জেগে জেগে শুনল বৃষ্টির শব্দ, লীনা শুনতে চেষ্টা করল অনাগত শিশুটির হৃৎপিণ্ডের শব্দ। 

Leave a comment

Your email address will not be published.