সেনাবাহিনীতেই বেশি করে সময় দেবেন ধোনি

১৫ ই আগষ্ট শনিবার ভারতের স্বাধীনতা দিবসে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি । দীর্ঘ এক বছর ধরে তাঁকে নিয়ে চলতে থাকা জল্পনা কে স্বকীয় মেজাজেই বাউন্ডারিতে পাঠালেন দেশের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক । 

ক্রিকেট থেকে অবসর গ্রহণ করার পর বেশিরভাগ ক্রিকেটারই মাঠে ধারাভাষ্যকার, কোচ কিংবা মেন্টরের ভূমিকা পালন করে থাকেন । অবসরোত্তর জীবন ধোনি কীভাবে কাটাবেন সে প্রশ্ন অনেকেরই । অবসর নিয়ে কথা বলতে গিয়ে ধোনির বিজনেস পার্টনার ও কাছের বন্ধু অরুণ পান্ডে বলেন, অবসোরত্তর জীবন আরও বেশি করে কাটাবেন দেশের সেনাবাহিনীর সঙ্গে ।

পান্ডে মনে করেছিলেন , চলতি বছরের টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপের পর অবসরের ঘোষণা দেবেন ধোনি । কিন্তু বিশ্বকাপ পিছিয়ে যাওয়ায় পুরো বিষয়টা ধোনির হাতেই ছিল । স্বাধীনতা দিবসে ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার ব্যাপারটা ধোনি ছাড়া তাঁর ঘনিষ্ঠমহলে কেউ জানত না বলে দাবি অরুণ পান্ডের । পিটিআই’কে পান্ডে জানিয়েছেন, ‘জানতাম ধোনি শ্রীঘ্রই অবসর নেবে কিন্তু সঠিক সমটা আমরা কেউই জানতাম না । যাই হোক এটা সম্পূর্ণ তাঁরই ব্যাপার । ও আইপিএলে জন্য প্রস্তুতি শুরু করেছিল । কিন্তু প্রথম সেটা স্থগিত হলো এবঙ তারপর টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ।মানসিকভাবে মুক্ত হতে চাইছিল ধোনি । ১৫ ই আগষ্ট দেশের সেনাবাহিনিীর জন্য একটা বিশেষ দিন । ধোনি এই ব্যাপারটাকে মাথায় রেখেছিল । তবে নিঃসন্দেহে টি-20 বিশ্বকাপে স্থগিতাদেশ ওর অবসরের ঘোষণার একটা বড় কারণ । 

বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি দেশের টেরিটোরিয়াল আর্মির সমনানিক লেফটেন্যান্ট কর্ণেল পদে আসীন । ২০১৯ বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হেরে এসে একমাসের বেশি সময় সেনাবাহিনীর প্যাবাসুট রেজিমেন্টের সঙ্গে ট্রেনিং করেছিলেন মাহি । সমস্ত ‍দিক বিবেচনা করেই অরুণ পান্ডে বলেন, ‘ধোনি আর যাই করুন না কেন সেনাবাহিনীর সঙ্গে পরবর্তীতে যে আরও বেশি করে সময় কাটাবেন সেটা নিশ্চিত ।’

Leave a comment

Your email address will not be published.