দুই দুয়ারী-পর্ব-(৫)-হুমায়ুন আহমেদ

না কেন?আগে একবার তােমার সঙ্গে বৃষ্টিতে ভিজেছি, তারপর তুমি যে কাণ্ড করেছাে তারপর আমার আর সাহসে কুলায় না। 

দুই দুয়ারীআজ আমি সন্ন্যাসীর মত আচরণ করবতােমার কাছ থেকে সবসময় চার হাত দূরে থাকবওয়ার্ড অব অনারচলে আসব ?” 

আস: ভাল কথা, লােকটার কোন খোঁজ পাওয়া গেছে? মিঃ জুলাই?” 

লােকটার সম্পর্কে আমার কি ধারণা শুনতে চাও? আমার ধারণা ব্যাটা একটা ফ্রডবিরাট ফ্রডস্মৃতিশক্তি হারানাের ভান করে তােমাদের এখানে মজায়। 

আমাদের এখানে মজার কি আছে। 

ফুড এণ্ড শেলটার আছেএই শহরে কটা লােকের ফুড এণ্ড শেলটার ছে জান? এবাউট ফটি পারসেন্ট লােকের নেইতােমরা এক কাজ করঘাড় ধরে লােকটাকে বের করে দাও। 

লােকটার উপর তােমার এত রাগ কেন?” 

ফ্রড লােকজন আমি সহ্য করতে পারি নালােকটার গালে পঞ্চাশ কেজি ওজনের দুটো চড় দিলেই দেখবে হারানাে স্মৃতি ফিরে এসেছে। ফড় ফড় করে কথা বলছে। 

কে দেবে চড়?কেউ দিতে রাজি না থাকে আমি দেব। 

আচ্ছা চলে এসএসে চড় দিয়ে যাও” 

এষা টেলিফোন রেখে জানালার পাশে চলে গেল লােকটা এখনাে বৃষ্টিতে ভিজছেএই কাণ্ড সে কি ইচ্ছা করে করছে? দেখাতে চাচ্ছে তার মাথা ঠিক নেই

সাবের বারান্দায় হাঁটছিল। 

হাঁটতে হাঁটতে সারা দুপুর যা পড়েছে তা মনে করার চেষ্টা চলছেবেশীর ভাগই মনে পড়ছে নাসব এলোমেলাে হয়ে যাচ্ছেতার ধারণা, ব্রেইন পুরােপুরি গেছেআধঘন্টা আগের পড়া জিনিসও কিছুই মনে নেই। 

কিছুক্ষণ আগে সে ডায়েট সম্পর্কে পড়ছিলএকজন পূর্ণ বয়স্ক মানুষের কি কি মিনারেল লাগে, কতটুকু লাগেসব তালগােল পাকিয়ে গেছেমনে করার চেষ্টা করেও লাভ হচ্ছে না। 

ক্যালসিয়াম দৈনিক গ্রাম WHO বলছে তারচে কম হলেও চলে .থেকে .। 

আয়রণ১৫ মিলিগ্রাম আয়ােডিন০১ মিলিগ্রামফসফরাস গ্রাম। 

আসল জিনিসটাই মনে আসছে না সােডিয়াম কতটুকু দরকারঅনেকখানিদৈনিক খাবার লবণ শরীরে যাচ্ছে দরকার কতটুকু? এই লবণের সঙ্গে আবার ব্লাড প্রেসার জড়িত। ফ্লোরিনও তো দরকার। কতটুকু? একটু আগে পড়া অথচ কিছুই মনে পড়ছে নাসাবেরের প্রায় কান্না পাচ্ছে। 

মিতু একতলা থেকে দোতলায় উঠে এলবারান্দায় সাবেরকে হাঁটাহাঁটি করার দৃশ্য সে খানিকক্ষণ দেখে সহজ স্বরে বলল, ভাইয়া তুমি বৃষ্টিতে ভিজছ 

সাবের তার দিকে তাকালকিছু বলল নাতার চোখেমুখে সুস্পষ্ট বিরক্তিসােডিয়াম ইনটেকের পরিমাণ মনে করতে হবেযেভাবেই হােক মনে করতে হবেমিতু আবার বলল, ভাইয়া, তুমি বৃষ্টিতে ভিজে ন্যাতা ন্যাতা হয়ে গেছে। 

বিরক্ত করিস নাতােতােমাকে কি রকম যেন পাগলের মত লাগছেতাই নাকি?হুঁ। 

সাবের এই প্রথম লক্ষ্য করল বৃষ্টির ছাটে সে সত্যি সত্যি অনেকখানি ভিজেছেঠাণ্ডা লেগে যেতে পারেঠাণ্ডা লাগলে অনেক রকম কমপ্লিকেশনশরীরের ডিফেন্স সিসটেম দুর্বল হয়ে যাবেভাইরাস জেঁকে ধরবেইনফ্লুয়েনজা

.. আচ্ছা ইনফ্লুয়েনজা ভাইরাসের নাম কি যেন। 

মিতু। 

কি?” 

আমি কি পাগল হয়ে যাচ্ছি?হঁ্যাঅল্প একটু বাকিপুরােপুরি পাগল হলে তুমি কি করবে? জানি নামিস্টার জুলাইমত বৃষ্টিতে বসে বসে ভিজবে?মিস্টার জুলাইটা কে?দেখ কাঁঠাল গাছের নীচে বসে ভিজছেলােকটা কে?” 

কেউ জানে না কেআমরা যখন ময়মনসিংহ থেকে আসছিলাম তখন গাড়িতে ধাক্কা দিয়ে লােকটাকে ফেলে দেইপ্রথম ভাবলাম মরে গেছেকিন্তু মরে নাইবাসায় নিয়ে এসেছিএই লােকটাও তােমার মত কিছু মনে রাখতে পারে” 

কতদিন হল আছে?চারদিন হয়ে গেলআমাকে তাে কেউ কিছু বলেনিতােমাকে বলে কি হবে

সাবের দীর্ঘ নিঃশ্বাস ফেলে বলল, তাও ঠিকআমি নিজের যন্ত্রণাতেই অস্থিরঅন্যের যন্ত্রণা নিয়ে চিন্তার সময় আমার কোথায়সাবের বলল, মিতু তুই আমাকে চা খাওয়াতে পারবি

না। 

কাজের মেয়েটাকে বলে আসতে পারবি তাে? নাকি তাপারবি নাতাপারব নাআমি দোতলা থেকে মিস্টার জুলাইকে দেখবএকটা মানুষ বৃষ্টিতে ভিজছে তার মধ্যে দেখার কি আছে?” 

লােকটা পাথরের মত বসে আছেএকটুও নড়ছে নাকখন নড়ে সেটা দেখববারান্দার লাইটটা জ্বালিয়ে দাও তাে ভাইয়া লােকটার গায়ে আলাে 

সাবের বাতি জ্বালিয়ে দিতেই লােকটার উপর আলাে পড়লসাবের বিরক্ত হয়ে বলল, তুই না বললি লােকটা পাথরের মত বসে আছে, নড়ছে নাতাে নড়ছেসত্যিই তাইলােকটা মাথার পানি ডান হাতে মুছছেএকবার ঘাড় ঘুরিয়ে সাবেরের দিকে তাকাল। 

মিতু, ভদ্রলােকের নাম কি বললি?” মিস্টার জুলাইআর তিনদিন পর উনার নাম হবে মিস্টার আগস্ট। 

‘আমি বােধহয় পুরােপুরি পাগল হয়ে গেছি, তাের কথাবার্তা কিছুই বুঝছি নাআর তিনদিন পর তার নাম মিস্টার আগস্ট হবে কেন?” 

ভাইয়া, তােমার সঙ্গে আমি এত কথা বলতে পারব নাতুমি কোন কিছু বুঝিয়ে বললেও বােঝ না। 

মিতু বারান্দার এক কোণায় চলে গেলএখান থেকে লােকটাকে ভাল দেখা যায়সাবের নীচে গেলসে নীচে নামল কাজের মেয়েটিকে চায়ের কথা বলার উদ্দেশ্যে

নীচে নেমে তা মনে রইল নাবাগানে নেমে গেলমিস্টার জুলাইএর সঙ্গে কিছুক্ষণ কথা বলতে ইচ্ছা করছেতিনদিন পর তার নাম মিঃ আগস্ট কেন হচ্ছে তা জানা দরকারজেনে ফেলার একটা বিপদও আছে মস্তিষ্কের মেমােরী সেলে ইনফরমেশনটা থেকে যাবেঅপ্রয়ােজনীয় ইনফরমেশনপ্রয়ােজনীয় ইনফরমেশন রাখার জায়গা টান পড়ে যাবে| বৃষ্টি এখন আর আগের মত পড়ছে নাগুঁড়ি গুঁড়ি পড়ছেলােকটা বসেইআছেসাবের তার কাছাকাছি এগিয়ে গেলবিস্ময়মাখা গলায় বলল, ভাই আপনি কে

লােকটি ঘাড় ঘুরিয়ে পরিচিত ভঙ্গিতে তাকালযেন এই হাসির মধ্যেই তার পরিচয় লুকানােসাবের বলল, আপনার নাম কি মিস্টার জুলাই

Leave a comment

Your email address will not be published.