বন্দে আলী মিয়া এর জীবনী ও সাহিত্যকর্ম

বন্দে আলী মিয়া বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী এবং একাধারে ছিলেন কবি ঔপন্যাসিক, শিশুসাহিত্যিক, সাংবাদিক ও চিত্রকর । তাঁর কবিতায় ফুটে উঠেছে পল্লী বাংলার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য । প্রকৃতির রূপ বর্ণনায় তিনি ছিলেন সিদ্ধহস্ত ।বন্দে আলী মিয়া

তাঁর রচিত শিশুতোষ গ্রন্থ আজও অমর হয়ে আছে । তিনি শিক্ষকতা ও সাহিত্যচর্চার পাশাপাশি পত্রপত্রিকায় চিত্রকর ও ব্লক কোম্পানির ডিজাইনার হিসেবেও কাজ করেন ।

  • বিশিষ্ট এই কবির জন্ম – ১৭ জানুয়ারি ১৯০৬ সালে ।
  • অন্যতম এই কবির পৈত্রিক নিবাস – পাবনা জেলার রাধানগর গ্রামে ।
  • বিশিষ্ট এই লেখকের পিতার নাম – পিতা মুন্সী উমেদ আলী । তিনি ছিলেন পাবনা জজকোর্টের একজন নিম্ন পদের কর্মচারী ।
  • অন্যতম এই লেখকের শিক্ষাজীবন – তিনি পাবনার মজুমদার একাডেমী থেকে ১৯২৩ সালে ম্যাট্রিকুলেশন পাস করে কলকাতা আর্ট একাডেমীতে ভর্তি হন এবং ১ম বিভাগে উর্ত্তীন হন । 
  •  ১৯৩০ থেকে ১৯৪৬ পর্যন্ত শিক্ষকতা করেন – কলকাতা কর্পোরেশন স্কুলে ।
  • দেশ বিভাগের পর তিনি কলকাতায় জীবনে সান্নিধ্য লাভ করেন – রবীন্দ্রনাথ ও নজরুলের ।
  • কলকাতা জীবনে তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থ – প্রায় ২০০ খানা ।
  • কলকাতার বাজারে বিশেষ জনপ্রিয়তা অর্জন করে – বিভিন্ন গ্রামোফোন কোম্পানীতে তাঁর রচিত পালাগান ও নাটিকার রের্কড ।

বন্দে আলী মিয়া এর জীবনী ও সাহিত্যকর্ম

  • তিনি প্রথমে ঢাকা বেতারে চাকরি করেন -১৯৪৬ সালের পর ।
  • ১৯২৫ সালে তিনি সাংবাদিক হিসেবে যোগদান করেন – ইসলাম দর্শন পত্রিকায় ।
  • ’ময়নামতির চর’ কোন জাতীয় রচনা – কাব্যগ্রন্থ ।
  • ’ময়নামতির চর’ কাব্যগ্রন্থের রচয়িতা – বন্দে আলী মিয়া ।
  • তাঁর রচিত ’ময়নামতির চর’ কাব্যগ্রন্থটি প্রকাশিত হয় – ১৯৩২ সালে ।
  • ’অনুরাগ’ কোন শ্রেণীর রচনা – কাব্যগ্রন্থ ।
  • তাঁর রচিত ‘অনুরাগ’ কাব্যগ্রন্থটি প্রকাশিত হয় -১৯৩২ সালে ।
  • ’পদ্মানদীর চর’ কোন জাতীয় রচনা – কাব্যগ্রন্থ ।
  • তাঁর রচিত ’ধরিত্রী’ একটি – কাব্যগ্রন্থ ।
  • ’ধরিত্রী’ কাব্যগ্রন্থটি প্রকাশিত হয় – ১৯৭৫ সালে ।
  • ’মধুমতীর চর’ কোন জাতীয় রচনা – কাব্যগ্রন্থ ।
  • ’মধুমতীর চর’ কাব্যগ্রন্থটি প্রকাশিত হয় – ১৯৫৩ সালে ।
  • ’ময়নামতির চর’, ’পদ্মানদীর চর’ ও ’মধুমতীল চর’ কাব্যগ্রন্থের রচয়িতা – বন্দে আলী মিয়া ।
  • ’শেষ লগ্ন’(১৯৪১) কোন জাতীয় রচনা – উপন্যাস ।
  • ’শেষ লগ্ন’ উপন্যাসের রচয়িতা – বন্দে আলী মিয়া ।
  • বন্দে আলী মিয়া রচিত বিখ্যাত কয়েকটি উপন্যাসের মধ্যে রয়েছে – ‘অরণ্য’, ‘গোধূলী’, ‘ঝড়ের সংকেত’, ’নীড়ভ্রষ্ট’(১৯৫৮), ‘জীবনের দিনগুলো’, ’বসন্ত জাগ্রত দ্বারে’(১৯৩১), ‘অরণ্য গোধূলি’(১৯৪৯) প্রভৃতি ।
  • ’তাসের ঘর’ কোন জাতীয় রচনা – গল্পগ্রন্থ ।
  • ’তাসের ঘর’ গল্পগ্রন্থের রচয়িতা – বন্দে আলী মিয়া ।
  • ’ ১৯৫৪ সালে -তাসের ঘর’ গল্পগ্রন্থটি প্রকাশিত হয় ।
  • ’মসনদ’ কোন ধরনের রচনা – নাটক ।
  • ’মসনদ’ নাটকটি সম্পাদিত হয় – ১৯৩১ সালে ।
  • ’কুঁচবরণ কন্যা’ কোন জাতীয় রচনা – শিশুতোষগ্রন্থ ।
  • ’কুঁচবরণ কন্যা’(১৯৬১) গ্রন্থের রচয়িতা – বন্দে আলী মিয়া ।

বন্দে আলী মিয়া এর জীবনী ও সাহিত্যকর্ম

 

  • তাঁর রচিত বিখ্যাত কয়েকটি শিশুতোষ গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে – ‘চোর জামাই’(১৯২৭), ‘মেঘকুমারী’(১৯৩২), ‘বাঘের ঘরে ঘোগের বাসা’(১৯৩২), ‘মৃগপরী’(১৯৩৭), ‘বোকা জামাই’(১৯৩৭), ‘সোনার হরিণ’(১৯৩৯), ‘শিয়াল পন্ডিতের পাঠশালা’(১৯৫৬), ‘ডাইনী বউ’(১৯৫৯), ‘রূপকথা’(১৯৬০), ‘সাত রাজ্যের গল্প’(১৯৭৭) ‘হাদিসের গল্প’ প্রভৃতি ।
  • ’কামাল আতাতুর্ক’, ‘শরৎচন্দ্র’, এবং ছোটদের নজরুল’ গ্রন্থের রচয়িতা – বন্দে আলী মিয়া ।
  • বিখ্যাত কবিতা ‘আমাদের গ্রাম’ এর লেখক – বন্দে আলী মিয়া ।
  • বিখ্যাত ‘মসনদ’ নাটকের রচয়িতা – বন্দে আলী মিয়া ।
  • তিনি মরণোত্তর ’একুশে পদকে’ ভূষিত হন – ১৯৮৮ সালে ।
  • তিনি বাংলা একাডেমী পুরস্কার পান – শিশুসাহিত্যে অবদানের জন্য ১৯৬২ সালে ।
  • তাঁর অন্যান্য পুরস্কার সমূহ – ‘প্রেসিডেন্ট পুরস্কা’(১৯৬৫) এবং উত্তরা সাহিত্য মজলিস পদক’(১৯৭৭) লাভ করেন । ১৯৬৭ সালে পাকিস্তান সরকার কর্তৃক ‘প্রাইড অফ পারফরম্যান্স’ পুরস্কার লাভ করেন সাহিত্যে উল্লেখযোগ্য অবদারের জন্য ।
  • তিনি কোথায় মৃত্যুবরণ করেন – রাজশাহীতে ।
  • বিশিষ্ট এই কবি মৃত্যুবরণ করেন – ১৯৭৯ সালের ২৭ জুন ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *