• Wednesday , 25 November 2020

শিশুদের দিনে কত ঘন্টা ঘুমানো উচিত আমরা জানি কি?

শিশুর বিকাশে কোন ৪ টি খাবার জরুরি এবং ঘুমের প্রয়োজনীয়তা কি? শিশুদের দিনে কত ঘন্টা ঘুমানো উচিত আমরা জানি কি? শিশুদের

শারীরিক সুস্থতার একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো ঘুম।প্রতিদিন প্রাপ্ত বয়স্কদের ৬/৭ ঘন্টা আর ছোট বাচচ্চাদের ৮/১০ ঘন্টা অবশ্যই ঘুমানো উচিত। ঘুমের মধ্যেই ছেলেদের শরীরের বৃদ্ধি হয় এবং মস্তিষ্কের সঠিক গঠন হয়। তাই পরিপূর্ণ ঘুম খুবই প্রয়োজনীয় সবার জন্য।    

যে খাবারে শিশুদের সঠিক শারীরিক বৃদ্ধি হয় এবং ঘুমও ভালো হয় সেগুলো হলো —-

দুধ :

দুধ শিশুদের জন্য খুবই উপকারী ও আদর্শ খাদ্য। দুধ শিশুদের শুধু শারীরিক বৃদ্ধিতেই নয় ভালো ঘুমের জন্যও উপকার। দুধের মধ্যে রয়েছে ট্রিপটোফিন নামক অ্যামাইনো এসিড। এটি ঘুম ভালো হতে সাহায্য করে। সাধারণত ঘুমের আগে বাচ্চাদের দুধ দেয়া উচিত।এতে ঘুম ভালো হয়।  

কলা :

কলা খুবই উপকারী একটা ফল। শিশুদের জন্য তো অবশ্যই বড়দের জন্যও কলা খুবই উপকারী।কলায় রয়েছে ক্যালসিয়াম, আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম। যা শিশুদের হাড় গঠনে সহায়তা করে,  ম্যাগনেসিয়াম পেশীকে শিথিল করে। ঘুম তৈরির হরমোন, যেমন- মেলাটোনিন, সেরেটোনিন ইত্যাদি বাড়ায়।ফলে শিশুদের রোজ অন্তত একটা করে হলেও কলা খাওয়ানো উচিত। এতে তাদের ঘুমও খুব ভালো হবে । 

পালংশাক : 

পালংশাকের মধ্যেও রয়েছে ট্রিপটোফেন।যা শিশুদের শারীরিক গঠনে যেমন সহায়তা করে তেমনি শিশুদের ঘুমের জন্যও উপকারী । 

ওয়ালনাট :

ওয়ালনাট হলো এক প্রকার বাদাম, যা দেখতে অনেকটা মানুষের মস্তিষ্কের মত। এর মধ্যে রয়েছে ভালো মানের ট্রাইপোফেন। ভালো ফলাফলের জন্য ঘুমানোর আগে শিশুদের ওয়ালনাট খাওয়ানো যেতে পারে। 

শিশুদের বৃদ্ধিতে ঘুম খুবই জরুরি একটি বিষয়। একটি ভালো ঘুম শিশুকে মনোযোগী হতে সাহায্য করে। উপরে উল্লেখ্য চার রকমের খাবার শিশুদের ভালো ঘুম ও ভালো শারীরিক এনং মানসিক বিকাসে উপযোগী। 

 

নিম্নে একেবারে সদ্যজাত শিশু থেকে ১২ মাসের শিশুটি  দিনে কত ঘন্টা ঘুমানো জরুরি তা চার্টাকারে  দেওয়া হলো : 

 

 

বয়স ঘুমানোর সময় ঘন্টা  কারন
নবজাতক – দুই মাস প্রায় সারাদিন বা যে কোন সময়  প্রায় ১৮ – ২০

কম বেশি হতে পারে

নবজাতকেরা যত বেশি ঘুমাবে ততই তাদের শরীরের জন্য ভালো। 
দুই – চার মাস দিনের কম করে তিনবার আর রাতে প্রায় ৯/১০ ঘন্টা প্রায় ১২ – ১৪

১/২ ঘন্টা কম বেশি হতে পারে

এই পরিমান ঘুম তাকে শারীরিক বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে 
চার – ছয় মাস  দিনে অন্তত দুই বা তিন বার আর রাতে ৮/১০ ঘন্টা  প্রায় ১২ – ১৪

১/২ ঘন্টা কম বেশি হতে পারে

বাচ্চা যদি এই সময় পর্যন্ত ঘুমায় তবে বুঝতে হবে শিশুটি সুস্।  
ছয় – নয় মাস দিন দুই বার এবং রাতে প্রায় ৮/১০ ঘন্টা প্রায় ১২ – ১৪

১/২ ঘন্টা কম বেশি হতে পারে

এই বয়সে এই ঘুম খুবই দরকার তার মানসিক ও শারীরিক বিকাসে 
নয় – বারো মাস দিনে দুইবার অবশ্যই আর রাতে ৮/১০ ঘন্টা প্রায় ১২ ঘন্টা

১/২ ঘন্টা কম বেশি হতে পারে। 

১২ মাসের শিশুরটি যদি দিনে ১২ ঘন্টা ঘুমায় বা তারচেয়ে বেশি ঘুমায় তা মোটেও চিন্তার বিষয় নয়।বরং এটাই স্বাভাবিক।এটা তার বিকাস ঠিক রাখবে।

একটি শিশুর পরিপূর্ণ ঘুম ও খাবার  তাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে বিকাসে ও সুস্থ থাকতে অনেকাংশেই সাহায্য করে। শিশুটির ঘুম ঠিক থাকা মানে সে সুস্থ। তাই শিশুর খাবার ও  ঘুমের প্রতি আমাদের যত্নবান ও সচেতন হওয়া উচিত।

 

 

লিখেছেন –

ত্রোপা চক্রবর্তী 

 

 

    

Related Posts

Leave A Comment