• শনিবার , ১১ জুলাই ২০২০

কালোজিরার কার্যকারিতাগুলো কি কি? আসুন জেনে নেই 

মৃত্যু ছাড়া সকল রোগের ঔষধ কালোজিরার কার্যকারিতাগুলো কি কি? আসুন জেনে নেই

রান্নায় যে মশলাগুলো আমরা ব্যবহার করি তার মাঝে কালোজিরা অন্যতম।রান্নায় কালোজিরার ব্যবহার তারকারির ঘ্রাণ ও স্বাদেকে অনেক বাড়িয়ে দেয়।আর এই কালোজিরা শুধু মশলা হিসাবেই নয়, এর অনেক ভেষজ গুনও রয়েছে।আর্য়ুবেদিক শাস্ত্রে কালোজিরার কার্যকারীতা ও অপকারীতার কথা বলা আছে।বলা হয়ে থাকে যে, এই কালেজিরা সর্ব রোগের মহা ঔষধ।  কালোজিরা

 

করোজিরায় রয়েছে, আয়রন, পটাশিয়াম, সোডিয়াম, ক্যালসিয়াম, অ্যামিনো এসিড, ভিটামিন, প্রোটিন, ফ্যাটি এসিড,ওলিক এসিড, উদ্ধায়ী তেল ইত্যাদি যা আমাদের শরীরের জন্য ভিষন উপকারী।নিম্নে করলোজিরা কোন কোন রোগের ক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা রাখে তা দেয়া হলো ——

 

বিভিন্ন ব্যথা নিরাময়ে :

বাতের ব্যাথা, মাথা ব্যাথা, হাতে পায়ের জয়েন্টের ব্যাথায় কালোজিরার তেল মালিশ করলে ব্যাথা থেকে মুক্তি পাওয়া যা।  

 

ডায়াবেটিস নিরাময়ে :

প্রতিদিন এক চিমটি কালোজিরা এক গ্লাস পানি দিয়ে সকালে খালি পেটো খেলে বা দৈনিক কালোজিরার ভর্তা খেলে ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে।   

 

ত্বকের যত্নে :

লেবুর রসের সাথে কালোজিরার তেল মিশিয়ে প্রতিদিন ত্বকে লাগালে ব্রণ ও নানা রকমের দাগ দূর হয়।

 

হার্টের সমস্যা নিরাময় :

যাদের হার্টের সমস্যা তারা প্রতিদিন এক কাপ দুধের সাথে এক চামচ কালোজিরা গুড়া ৫/৬ সপ্তাহ খেলে উপকার পাবে।

 

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়:

প্রতিদিন কালোজিরা খেলে শরীর সতেজ হয় এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে।

 

সর্দি ও কাশি নিরাময়ে :

সর্দি কাশিতে কালোজিরা খুবই কার্যকরী।কালোজিরা গুড়া খেলেও উপকার পাওয়া যাবে বা ১ চামচ কালোজিরার তেলের সাথে ২ চামচ তুলসী পাতার রস খেলেও সর্দি ও কাশিতে খুবই উপকার।  

 

শ্বাস কষ্ট জনিত সমস্যা নিরসনে :

প্রতিদিন খাবার তালিকায় কালোজিরে ভর্তা রাখলে হাঁপানি না শ্বাস কষ্ট জনিত সমস্যা দূর হয়। 

 

শিশুদের দৈহিক ও মানসিক বৃদ্ধিতে:

অনেক ছোট থেকেই শিশুদের কালজিরা কোন না কোনভাবে খাওয়ানোর অভ্যাস করা উচিত।কারন এটি শিশুদের দৈহিক ও মানসিক বৃদ্ধিতে খুবই উপকার।     

 

নবজাতকের মায়েদের দুধ বৃদ্ধি করে: যে সকল মায়েদের পর্যাপ্ত দুধ নেই তারা প্রতিদিন কালোজিরা গুড়া খেলে উপকার পাবে। 

 

মাসিকের সমস্যা নিরাময় :

অনিয়মিত মাসিক যাদের তারা এক কাপ আতপ চাল ধোয়া পানির সাথে এক চা চামচ কলোজিরার তেল দিনে ৩ বার খেলে উপকার পাবে।

 

ক্যান্সারের প্রতিষেধক:

কলোজিরায় যে সকল উপাদান রয়েছে তা ক্যান্সারের মত ঘাতক রোগের প্রতিষেধক হিসাবে কাজ করে। 

 

স্মরণ শক্তি বৃদ্ধিতে সহায়ক :

কালোজিরা মস্তিষ্কে রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করে।আর এই জন্য স্মৃতি শক্তি বৃদ্ধি পায়। 

মোট কথায়, ১০০ গুন সম্পূর্ণ কালোজিরা আমাদের শরীরের  নানা রকম রোগের  অ্যান্টিবায়োটিক হিসাবে কাজ করে। উপরে উল্লখিত বিষয়গিলো ছারাও লিভার, কিডনি, একজিমা, উচ্চরক্তচাপ ইত্যাদি রোগের ক্ষেত্রেও কালোজিরা বিশেষ ভূমিকা রাখে।    তাই প্রতিদিন নিয়ম করে কোন না কোন ভাবে কালজিরা খাওয়া উচিত। 

 

  

 

    

Related Posts

Leave A Comment